একই মেয়েকে পছন্দ দুই যুবকের, রাতের আঁধারে একজনকে কুপিয়ে জখম

একই মেয়েকে পছন্দ দুই যুবকের, রাতের আঁধারে একজনকে কুপিয়ে জখম

নেত্রকোনা প্রতিনিধি:
নেত্রকোনার মোহনগঞ্জে শাহানুর মিয়া (১৮) নামে এক টাইলস মিস্ত্রীকে  রাতের আঁধারে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। পরে তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (মমেক) পাঠানো হয়েছে।
রোববার রাত সাড়ে দশটার দিকে মোহনগঞ্জ পৌরশহরে দক্ষিণ দৌলতপুর শেখবাড়ির পাশে শিয়ালজানি খাল পাড়ে এ ঘটনা ঘটে।
সোমবার দুপুরে মোহনগঞ্জ থানার ওসির দায়িত্বে থাকা পরিদর্শক (তদন্ত) শফিকুজ্জামান  এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, একই মেয়েকে পছন্দ করেন টাইলস মিস্ত্রী শাহানুর মিয়া ও অটোচালক মারুফ। এ নিয়ে দুইজনের মধ্যে দ্বন্দ্ব দেখা দেয়। পরে এ ঘটনার জেরে রোববার রাতে শাহানুরকে ডেকে নিয়ে কুপিয়ে জখম করে মারুফ ও তার বন্ধুরা।
শাহানুর মিয়া বারহাট্টা উপজেলার সদর ইউনিয়নের দুর্গাপুর গ্রামের মঞ্জিল খানের ছেলে। শাহানুর একজন টাইলস মিন্ত্রী। শাহানুর মোহনগঞ্জ-বারহাট্টাসহ বিভিন্ন উপজেলায় টাইলসের কাজ করত।
অভিযুক্ত মারুফের বাড়ি মোহনগঞ্জ পৌরশহরে। সে অটোরিক্সা চালক বলে জানা গেছে।
আহত শাহানুরের বড় ভাই হাদিছ মিয়া জানান, মোহনগঞ্জের মারুফ নামের এক অটো চালক শাহানুরকে ডেকে নিয়ে চাইনিজ কুড়াল দিয়ে কুপিয়েছে। তার মাথা ও হাতে ৫-৬টি কুপ লেগেছে। বর্তমানে মমেকে ভর্তি রয়েছে। তবে কি কারণে শাহানুরকে কুপিয়েছে তা জানি না। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের জন্য অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।
আহত শাহানুরের বন্ধু ধর্মপাশা উপজেলার মো. ইজাজুল বলেন, মারুফের সাথে শাহানুরের কি দ্বন্দ্ব তা জানা নেই। রোববার সারাদিন আমার সাথেই ছিল শাহানুর। রাতে মোহনগঞ্জে আসার পর মারুফ তাকে দেখা করার কথা বলে ডেকে নেয়। এক পর্যায়ে চাইনিজ কুড়াল দিয়ে তাকে কুপিয়ে ফেলে রেখে যায়। রক্ষাক্ত অবস্থায় শাহানুর নিজের গায়ের শার্ট দিয়ে ক্ষতস্থান বেধে সড়কে উঠে আমাদের কল দেয়। দ্রুত তাকে মমেক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।
এদিকে চেষ্টা করেও অভিযুক্ত মারুফের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
পরিদর্শক (তদন্ত) শফিকুজ্জামান বলেন, শুনেছি দুইজন এক মেয়েকে পছন্দ  করত। সেই দ্বন্দ্বে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ দিতে বলা হয়েছে। তদন্ত করে এ বিষয়ে যথাযথ আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত