শিরোনাম :
“প্রেসিডেন্ট পুলিশ মেডেল (পিপিএম)- সেবা” পেলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ ফরহাদ সরদার সাভারে বিএনসিসির সেন্ট্রাল ক্যাম্পিংয়ের সম্মিলিত কুচকাওয়াজ ও ডিসপ্লে অনুষ্ঠিত এম এম আমিনুল ইসলামকে আয়ারল্যান্ড প্রতিনিধি হিসাবে নিয়োগ দান  লক্ষীপুরে ডিবির জালে যৌন কর্মীসহ ৫জন আটক রক্তবন্ধু সমাজকল্যাণ সংগঠনের ৩য় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে অভিভাবক এওয়ার্ড ও গুণীজন সম্মাননা সাভার উপজেলা পরিষদ ঢাকা-১৯ এর এমপিকে সংবর্ধনা নওগাঁর পুলিশ সুপার”প্রেসিডেন্ট পুলিশ মেডেল” (পিপিএম-সেবা) প্রাপ্তি বড়াইগ্রামে জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস পালিত  মাদক নিয়ে  ট্রেন চালক সহ গ্রেপ্তার ৫  ভোলায় রওশন আরা ও রাব্বী হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন 
খুলনার চালনা পৌর এলাকা ও পানখালীতে ভয়বহ নদী ভাঙ্গন এলাকাবাসি আতঙ্কিত

খুলনার চালনা পৌর এলাকা ও পানখালীতে ভয়বহ নদী ভাঙ্গন এলাকাবাসি আতঙ্কিত

গোলাম মোস্তফা খান :
খুলনার দাকোপ সদর চালনা পৌর কিছু এলাকাসহ পানখালি ইউনিয়নের প্রাইমারী স্কুল সংলগ্ন খেয়াঘাটের কাছে জাবেরের খেয়াঘাট ও খোনা এলাকায় ব্যাপক হারে ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে । মারাত্তক দূর্ঘটনা এড়াতে মাঝে বেশ কয়েকদিন স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে কাজ করানোর পর বর্তমানে পানি উন্নয়ন বোর্ড খোনা এলাকায় কাজ করছে ।এলাকায় ভয়াবহ নদী ভাঙ্গন শুরু হওযায় এলাকাবাসি আতঙ্কের মধ্যে দিনাতিপাত করছে।দাকোপের ৩টি পোল্ডারের অধিকাংশ এলাকায় কমবেশি নদী ভাঙ্গন কবলিত হলেও দাকোপ সদর চালনা ও পানখালি ইফনিয়নটি বর্তমানে বেশ ঝুকির মধ্যে বলা যায়,পৌর এলাকায় তেমন কোন বড় ভাংগন দেখা না গেলেও দোকানপাট পানিতে ডুবে যাচ্ছে এবং গত কয়েকটি গোনে গভীর রাতে হঠাৎ পৌর এলাকার আচাভুয়াবাজারের নিকটবর্তী চালনা মেরিনের কাছের ওয়াপদা ভেড়িবাঁধের উপর দিয়ে পিচের রাস্তাসহ বসতবাড়ি,নলোপাড়া ,পাকা পুরাতনঘাট সহ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান মিলিয়ে ৮/৯ টি ঘরসহ দোকানপাট মিলিয়ে ২/৩শ হাত জায়গা নিয়ে নদীর মধ্যে ধ্বষে গেছে ।গভীর রাতে এমনিভাবে বসতঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালামাল নদী গর্ভে চলে যেতে থাকলে বসবাসরত লোকজন চেচামেচি শুরু করে লোকজন জড় করে সাথে সাথে মালামাল রক্ষার জন্য কাজ শুরু করে।গতকাল ৩ টায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় ৮/৯ জনের জায়গা নদীর গভীরে দেবে যাচ্ছে আর এসকল স্থানে থাকা হাজার হাজার ফুট লালবালি,ইট,ঘরের চালা রক্ষার জন্য শতাধীক লোক কাজ করছে ।স্থানীয় লোকজনের সাথে আলাপ করে জানা যায় ভাঙ্গনের খুব কাছ থেকে সারা বছর দেদারছে বালি উত্তোলনের কারনে সদরে এলাকায়ও বর্তমানে এই নদী ভাঙ্গন ।সদরের বাজার ও ঘন বসতিপূর্ণ এলাকায় হঠাৎ ওয়াপদায় এমন ভাঙ্গন দেখা দেওয়ায় এলাকার শত শত মানুষ আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে ।হঠাৎ এমন ভাঙ্গনের খবর জেনে উপজেলা চেয়ারম্যান মুনসুর আলি খান,সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান শেখ আবুল হোসেন, ইউপি চেয়ারম্যান শেখ আব্দুল কাদের ও মেয়র সনত কুমার বিশ্বাস সহ স্থানীয় কাউন্সিলররা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং দ্রুত ভাঙ্গন এলাকায় পদক্ষেপ নিতে পানি উন্নয়ন বোর্ডের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলেন ।

পানখালী স্কুল সংলগ্ন ভাঙ্গন এলাকাটি যে কোন সময় স্কুল সহ বিলিন হয়ে যেতে পারে বলে জানান স্থানীয় বাসিন্দা ও সিপিবিনেতা কিশোর রায়। আর বিশিষ্ঠি সমাজ সেবক শেখ সাব্বির আহমেদ জানান ২/৪ টন চাল দিয়ে এ সকল ভাংগন রক্ষা করা সম্ভব না টেন্ডারের মাধ্যমে বড় বরাদ্দের কাজ করেই এ সকল ভয়াবহ ভাঙ্গন রক্ষা করতে হবে,যেগুলো দাকোপে হচ্ছে না বল্লেই চলে ।

ওয়াপদার প্রকৌশলীর সাথে বার বার কথা বলার চেষ্টা করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি।দাকোপ ইউএনও আব্দুল ওয়াদুদ বলেন এলাকার লোকজন ভাঙ্গন রক্ষার দাবী নিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান মহোদয় ও আমার কাছে বৃহস্পতিবার এসেছিল, আমি আপাতত ৬ মেঃ টনের জরুরী ভিত্তিতে কাজ করার কথা বলেছি এলাকাটিকে বাঁচাতে ।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত