শিরোনাম :
ঝিনাইগাতী গজনী অবকাশ কেন্দ্র বাসের চাপায় প্রাণ গেলো আইসক্রীম বিক্রেতার বর্ণাঢ্য আয়োজনে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন গাজীপুর জেলার পিকনিক ২০২৪  অনুষ্ঠিত সবসময়ই কালোকে কালো এবং সাদাকে সাদা বলে দৈনিক  যুগান্তর ভান্ডারিয়ায় স্মার্ট আই ডি  বিতরণ  মোরেলগঞ্জ ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে বসতঘর ভস্মিভূত, ১০ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি খুলনায় আতাই নদী থেকে উদ্ধারকৃত মাহফুজকে বৈবাহিক কারণে স্ত্রীর স্বজনদের হাতে জীবন দিতে হয়েছে নওগাঁর মান্দায় নিভৃত পল্লী গ্রাম মশিদপুরে দিনব্যাপী বইমেলা বড়াইগ্রামে বর্ণিল আয়োজনে পিঠা উৎসব ও বসন্ত বরণ বাঘায় সাংবাদিক নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন  সীমান্তে হত্যা ও বিদেশী আগ্রাসন বন্ধের দাবীতে ঠাকুরগাঁওয়ে প্রতীকী লাশের মিছিল
গাজীপুরে পপুলার হাসপাতালে চিকিৎসা অবহেলায় রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ

গাজীপুরে পপুলার হাসপাতালে চিকিৎসা অবহেলায় রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ

বিশেষ প্রতিবেদন: গাজীপুরের মণিপুরে পপুলার হাসপাতালে চিকিৎসা অবহেলায় রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। গাজীপুর জেলার সদর উপজেলার ভাওয়ালগড় ইউনিয়ন এলাকায় ব্যাঙের ছাতার মত গড়ে ওঠা প্রাইভেট হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার গুলোর অনিয়ম দূর্নীতি অসংগতি যেন থামছেই না। প্রতিষ্ঠান গুলোতে প্রতিনিয়ত চলছে ভিন্ন ভিন্ন রকমের চটক ধার বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে রোগীদের আকৃষ্ট করে চিকিৎসার নামে হয়রানির উৎসব কার্যক্রম।

চটক ধার প্রচার দেখে গাজীপুর সদর উপজেলার ভাওয়ালগড় মির্জাপুর পিরুজালী ইউনিয়ন ও এর আশপাশ এলাকা থেকে বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষ চিকিৎসা নিতে এসে প্রতারণার শিকার হচ্ছে প্রতিনিয়ত। দীর্ঘ প্রায় ১০ মাস আগে মনিপুর বাজারে স্থাপিত হয় মনিপুর পপুলার হাসপাতাল এন্ড ডিজিটাল ডায়াগনস্টিক সেন্টার নামে একটি প্রতিষ্ঠান। যা পরিচালনা করেন সাইফুল ইসলাম মোল্লা নামে এক ব্যক্তি । কিন্তু প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ধরনের অপচিকিৎসাসহ নানা অনিয়ম অসংগতির অভিযোগ এই হাসপাতালটির বিরুদ্ধে।

সরেজমিন জানা যায়, মনিপুর গিলাগাছা ইসমাইল হোসেনের বড় ছেলে হযরত আলী (রানা) বুকে ব্যথা নিয়ে গত ২৩ আগষ্ট বিকেল ৫ টার দিকে চিকিৎসার জন্য মনিপুর পপুলার হাসপাতাল এন্ড ডিজিটাল ডায়াগনস্টিক সেন্টারে স্ত্রী মারুফা আক্তার টুনি এবং প্রতিবেশী সোহেলের সহযোগিতায় হাসপাতালে আসে এবং কর্তব্যরত ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে কিছু টেস্ট করে এবং ঔষধ গ্রহণ করেন। এমতাবস্থায় হাসপাতাল কতৃপক্ষ রানা’কে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা না দিয়ে সময় ক্ষেপণ করতে থাকলে একপর্যায়ে রুগী রানার অবস্থা আরও খারাপের দিকে গেলে তখন গাজীপুর সদর হাসপাতালে রেফার করতে বলেন। কিন্তু সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই রানার মৃত্যু হয়।

রানার স্বজনদের দাবি, ভুল চিকিৎসা এবং চিকিৎসার নামে সময় ক্ষেপণের কারণে হযরত আলী রানা’র অকাল মৃত্যু হয়েছে। এ বিষয়ে ডিউটি ডাক্তার মোঃ মুহসিন হুসাইন এবং হাসপাতালের ম্যানেজার সুমন সরদারের সাথে ফোনে কথা হলে এসব অভিযোগ অস্বীকার করে তারা বলেন, আমাদের হাসপাতালে আসার সাথে সাথে যথাযথ চিকিৎসা ব্যাবস্থা গ্রহণ করি এবং উন্নত চিকিৎসার জন্য গাজীপুর সদর হাসপাতাল রেফার করি।

এ বিষয়ে ইসমাইল হোসেনের ছোট ছেলে মৃত হযরত আলী রানা’র ছোট ভাই শেখ মফিজুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন এই মনিপুর পপুলার হাসপাতালের ভুল চিকিৎসার কারণে আমার শ্রদ্ধেয় বড় ভাইকে আমি হারিয়েছি এবং আমার ভাবি বিধবা হয়েছে আমার দুইটা ভাতিজি একটা ভাতিজা এতিম হয়েছে, আমার বৃদ্ধ অসুস্থ বাবা আদরের সন্তান হারিয়েছে আমি এই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের শাস্তি চাই সুষ্ঠু বিচার চাই।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত