গাজীপুরে শিশু শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের অভিযোগে আটক এক

গাজীপুরে শিশু শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের অভিযোগে আটক এক

হাসান:
গাজীপুরের চান্দনা চৌরাস্তার পাশে দীর্ঘদিন ধরে চলতে থাকা আল মদিনা আইডিয়াল মাদ্রাসার শিক্ষক সাকিবের বিরুদ্ধে শিশু শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের অভিযোগ করেন ভুক্তভোগীর পরিবার। তথ্য সুত্রে জানা যায় গত দুই মাস ধরে আল মদিনা আইডিয়াল মাদ্রাসার হেফজ বিভাগে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করে আসছেন সাকিব।আল মদিনা আইডিয়াল মাদ্রাসার শিশু শিক্ষার্থী আপেল(চদ্দনাম) বলাৎকারের উদ্যেশে শিক্ষার্থীর বিছানায় গিয়ে শিক্ষার্থীর উপর জোর প্রয়োগ করেন সাকিব।ভুক্তভোগীর তথ্য মতে জানা যায় পূর্বেও একাধিক বার বলাৎকারের উদ্যেশে ভুক্তভোগীর উপর জোর প্রয়োগ করেন আল মদিনা আইডিয়াল মাদ্রাসার হেফজ বিভাগের শিক্ষক সাকিব। পরবর্তীতে বিষয়টি যাতে কাউকে না বলেন তার জন্য শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি প্রদর্শন করেন সাকিব। কিন্তু সত্য কখনও চাপা থাকেনা এটা হয়তো ভূলেই গেছেন আল মদিনা আইডিয়াল মাদ্রাসার শিক্ষক সাকিব। বিষয়টি শিশু শিক্ষার্থী আপেল তার পরিবারের সদস্যদের জানালে গত ১৮-১১-২২ ইং তারিখে পরিবারের সদস্য এবং মাদ্রাসার অন্যান্য শিক্ষকদের যৌথ উদ্যোগে বলাৎকারকারী শিক্ষক সমাজের কলংক সাকিবকে আটক করে নিকটস্থ থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।এ ধরনের নোংরা ঘটনার পর এলাকায় চরম উত্তেজনা সৃষ্টি হয়, এবং আল মদিনা আইডিয়াল মাদ্রাসার শিক্ষার্থী ও তাদের পরিবারের সদস্যদের মাঝে চরম ভয় ও আতঙ্ক বিরাজ করছে। স্থানীয় তথ্য সুত্রে জানা যায় আল মদিনা আইডিয়াল মাদ্রাসার কিছু অ-ব্যাবস্থাপনার কথা।এ সব বিষয়ে জানতে মাদ্রাসার পরিচালনা কমিটির সাথে কথা যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। বলাৎকারকারী শিক্ষক সমাজে এক কলংকময় অধ্যায় রচনাকারী সাকিবের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় এলাকাবাসী সহ ভুক্তভোগীর পরিবার।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত