শিরোনাম :
নরেন্দ্র মোদি পূণরায় ক্ষমতায় এলে ৬ মাসের মধ্যে কাশ্মিরকে ভারতের অংশ করা হবে সিরাজগঞ্জে চলতি বছরই সেতু দিয়ে চলবে ট্রেন ইরানের প্রেসিডেন্ট হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় নিহত দিঘলিয়ায় মহি মল্লিকের নির্বাচনী নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে পুলিশী হয়রানীর অভিযোগ  নওগাঁয় গ্রামীন ব্যাংকের মত বিনিময় সভা-অনুষ্ঠিত  আশুলিয়ার শিমুলিয়ায় ভূমিদস্যুদের দখলে অসহায় মাসুদের জমি  আপনি বাংলাদেশ ব্যাংকে ঢুকবেন কেন সাংবাদিকেদের প্রশ্ন ওবায়দুল কাদেরের ইসরাইল হেরে যাচ্ছে: সাবেক গোয়েন্দা উপ-প্রধান শ্রীবরদীতে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার আশুলিয়ায় চায়না আদিবাসী নারী পাচার চক্রের বিরুদ্ধে মানববন্ধন
চার বিএনপি নেতার যাবজ্জীবন , ৪৪ জনের ৭ বছর করে কারাদন্ড

চার বিএনপি নেতার যাবজ্জীবন , ৪৪ জনের ৭ বছর করে কারাদন্ড

অনলাইন ডেস্ক: সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ২০০২ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গাড়িবহরে হামলা এবং অস্ত্র ও বিস্ফোরক দ্রব্য আইনের দুটি মামলায় বিএনপির সাবেক এমপি হাবিবুল ইসলাম হাবিবসহ (৪৫) চারজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। বাকি আসামিদের সাত বছর করে কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় সাতক্ষীরার স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল-৩ এর বিচারক বিশ্বনাথ মণ্ডল এ রায় ঘোষণা করেন।

যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন সাতক্ষীরা জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি, কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ-শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ও সাবেক সংসদ হাবিবুল ইসলাম হাবিব (৪৫), উপজেলার যুবদলের সভাপতি আব্দুল কাদের বাচ্চু (৪২), পৌর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক আরিফুর রহমান রনজু (৪০), সাবেক ছাত্রদলের সভাপতি রিপন (৩৫)।

এদিকে মামলার একটি অংশের সাজাপ্রাপ্ত হাবিবুল ইসলাম হাবিবসহ কারাগারে থাকা ৩৭ জন, জামিনে মুক্তি পাওয়াদের মধ্যে দু’জন আইনজীবী অ্যাডভোকেট আব্দুস ছাত্তার ও অ্যাডভোকেট আব্দুস সামাদ রয়েছেন।

১৭ সেপ্টেম্বর বাদির উপস্থিতিতে নারাজির শুনানি করার জন্য মুখ্য বিচারিক হাকিম নিতাই চন্দ্র সাহা ১৫ অক্টোবর ২০১৪ দিন ধার্য করেন। ওই দিন বিচারক শুনানি শেষ অভিযোগটি এজাহার হিসেবে গণ্য করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য কলারোয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেন। ওই দিনই মামলাটি থানায় রেকর্ড হওয়ার পর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) শফিকুর রহমানকে তদন্তকারি কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয়। দীর্ঘ তদন্ত শেষে সাড়ে ছয় মাস পর ২০১৬ সালের ৪ মে তিনি আদালতে ৫০ জনের নামে এ অভিযোগপত্র দাখিল করেন। ৭ মে আদালতে অভিযোগপত্রটি গৃহীত হয়। ২০১৬ সালের ৭ জুন অভিযোগপত্রে উল্লেখিত সকল আসামিদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি কার্যবিধির ১৪৭, ১৪৮, ৩২৩, ৩০৭, ৩৫৪, ৩৭৯, ৪০৯, ৪২৭, ৫০০ ও ৫০৬(২) ধারায় অভিযোগ গঠন করা হয়। অভিযোগপত্রে নাবালক রকীবের নাম রাখায় আসামিপক্ষ মহামান্য হাইকোর্টে গিয়ে কার্যক্রম স্থগিত করেন।

২০১৯ সালে মামলাটি নতুন করে সাতক্ষীরার মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতে এলে ২০২১ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি অভিযোগপত্রে উল্লেখিত ৫০ জন আসামিকে চার থেকে ১০ বছর মেয়োদে সাজা দেয়া হয়।

অপরদিকে মামলার অস্ত্র ও বিস্ফোরক দ্রব্য আইনের এসটিসি ২০৭/১৫, ২০৮/১৫ এ দু’টি মামলায় ১৫ জন সাক্ষী দেন। সাক্ষীগ্রহণ চলাকালে রাষ্ট্রপক্ষে অবস্থানকারী বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল এসএম মুনিরকে হুমকি দেয়ার ঘটনায় জজ কোর্টের পিপি অ্যাডভোকেট আব্দুল লতিফের সদর থানার সাধারণ ডায়েরির তদন্তে বিএনপি নেতা হাবিবুল ইসলাম হাবিবসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে নন জিআর মামলা দায়ের করা হয়। যা আজো চলমান।

যুক্তিতর্ক শেষে আজ মঙ্গলবার সাতক্ষীরার স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল-৩ এর বিচারক বিশ্বনাথ মণ্ডল রায়ের জন্য দিন ধার্য করেন।

সাতক্ষীরা জজ কোর্টের অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট কিসলু জানান, মামলায় ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বলে আমরা মনে করি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত