শিরোনাম :
জিরাবোর স্থানীয় বাসিন্দা তাজুল এর প্রতারণার ফাঁদে নিঃস্ব অনেকেই   

জিরাবোর স্থানীয় বাসিন্দা তাজুল এর প্রতারণার ফাঁদে নিঃস্ব অনেকেই   

স্টাফ রিপোর্টার: জিরাবোর স্থানীয় বাসিন্দা তাজুল এর প্রতারণার ফাঁদে পরে  নিঃস্ব হচ্ছে অনেকেই । তাদেরই একজন সাভার বিরুলিয়াধীন আউক পাড়ার মাসুম । মাসুম ও তাজুল এর সম্পর্ক ছিলো প্রায় ৩ বছর যাবত। তাজুলের কাজ জমি-জমার দালালি করা এবং বিভিন্ন ধরনের প্রতারণা মূলক কাজ করা। আর মাসুম হলো গ্রামের সাদামাঠা মানুষ। সরলতার সুযোগ নিয়ে তাজুল মাসুমকে বেশ কিছু জমি ক্রয় করার বিষয়ে প্রলোভন দেখিয়ে বায়না করিয়ে নেয় এবং এ পর্যন্ত ৪ টা জমির বায়না বাবদ প্রায় ১ কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়। পরবর্তীতে বায়নাকৃত জমি বুঝিয়ে দিতে বলিলে সে নানান তালবাহানা করে, কাগজপত্রও দেখায়না। একপর্যায়ে গত শনিবার মাসুমকে ২৪ ঘন্টার মধ্যে উঠিয়ে নিয়ে যাওয়ার হুমকি-ধামকি দেয়। এ ব্যাপারে পরেরদিন মাসুমের মা থানায় তাজুলের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করে।

এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে মাসুম বলে, তাজুল একজন প্রতারক যা আগে বুঝতে পারিনি। আমার কাছ থেকে প্রতারণা করে ৪টা জমির বায়না করাসহ  বিভিন্ন  সময় বিভিন্ন কারণ দেখিয়ে সে প্রায় ১ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এখন বায়নাকৃত জমির কাগজপত্র চাইতে গেলে কাগজপত্র না দিয়ে উল্টা আমাকে নানাভাবে হুমকি-ধামকি দিচ্ছে।এমনকি আমাকে ২৪ ঘন্টার মধ্যে উঠিয়ে নিয়ে যাওয়ারও হুমকি দিয়েছে। যার কারণে আমি জানের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

আরও জানা যায়,তাজুল শুধুমাত্র টাকা-পয়সা ,জমি-জমা নিয়েই প্রতারণা করেনা আরও বিভিন্ন ধরণের প্রতারণার সাথেও জড়িত সে। এই প্রতারণামূলক কাজগুলো করে সে একেক সময় একেক পরিচয় ব্যবহার করে। কখনও পরিচয় দেয় এমপির লোক হিসেবে, কখনও মন্ত্রীর লোক বলে পরিচয় দেয় আবার কখনও সাংবাদিকের পরিচয় দেয় অথচ জানা যায়, সে  লেখাপড়া জানেনা। বলা যায় বকলম। একাধিক ‍সুত্রে আরও জানা যায়  এ পর্যন্ত সে ১৮ থেকে ২০টি বিয়েও  করেছে। যা ছিল নারী সংক্রান্ত প্রতারণা।

এ সব ব্যাপারে জানতে তাজুলকে ফোন করা হলে নাম্বার বন্ধ পাওয়া যায়।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত