শিরোনাম :
ঝিনাইগাতী গজনী অবকাশ কেন্দ্র বাসের চাপায় প্রাণ গেলো আইসক্রীম বিক্রেতার বর্ণাঢ্য আয়োজনে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন গাজীপুর জেলার পিকনিক ২০২৪  অনুষ্ঠিত সবসময়ই কালোকে কালো এবং সাদাকে সাদা বলে দৈনিক  যুগান্তর ভান্ডারিয়ায় স্মার্ট আই ডি  বিতরণ  মোরেলগঞ্জ ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে বসতঘর ভস্মিভূত, ১০ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি খুলনায় আতাই নদী থেকে উদ্ধারকৃত মাহফুজকে বৈবাহিক কারণে স্ত্রীর স্বজনদের হাতে জীবন দিতে হয়েছে নওগাঁর মান্দায় নিভৃত পল্লী গ্রাম মশিদপুরে দিনব্যাপী বইমেলা বড়াইগ্রামে বর্ণিল আয়োজনে পিঠা উৎসব ও বসন্ত বরণ বাঘায় সাংবাদিক নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন  সীমান্তে হত্যা ও বিদেশী আগ্রাসন বন্ধের দাবীতে ঠাকুরগাঁওয়ে প্রতীকী লাশের মিছিল
তুরাগের রাস্তাঘাটের বেহাল অবস্থা চলাচলে বিঘ্ন

তুরাগের রাস্তাঘাটের বেহাল অবস্থা চলাচলে বিঘ্ন

তুরাগ সংবাদদাতা : রাজধানীর তুরাগের অধিকাংশ রাস্তাঘাট যানবাহনসহ জনচলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। সামান্য বৃষ্টি হলেই অনেক জায়গায় জলাবদ্ধতা দেখা দেয়। ভাঙা রাস্তায় গাড়ি চলাচল তো দূরের কথা হাঁটাও অসম্ভব হয়ে পড়েছে। ফলে এলাকাবাসীকে চরম দুর্ভোগে পড়তে হয়। স্থানীয়রা জানান, ঢাকা উত্তর সিটির ৫২,৫৩ ও ৫৪ নং ওয়ার্ড নিয়ে তুরাগ থানা গঠিত। আর এই ৩টি ওয়ার্ডে রয়েছে ছোট-বড় ৩৩টি গ্রাম। এ ওয়ার্ডে জনগণের চলাচলের জন্য পাকা-আধাপাকা ও অসংখ্য কাঁচা রাস্তা রয়েছে। ভাঙা রাস্তাগুলো দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার ট্রাক, বাস, সিএনজিচালিত অটোরিক্সা, ইজি-বাইকসহ বিভিন্ন ধরনের যানবাহন চলাচল করে। এ অঞ্চলের খানাখন্দের রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন অসংখ্য যানবাহন চলাচল করে। রাস্তায় দীর্ঘ রিক্সার লাইন লেগেই থাকে। এর ফলে রাস্তায় ঘণ্টার পর ঘণ্টা যানজট হয়। আর সড়ক দুর্ঘটনা এখানকার নিত্যদিনের ঘটনা। সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, বাউনিয়া বটতলা থেকে মিরপুর যাওয়ার রাস্তাটি চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। রাস্তাটির অনেক স্থানে গর্ত হয়েছে। এমন চিত্র দেখা যায় তুরাগের রানাভোলা, কামারপাড়া , ভাটুলিয়া, ধউর, রাজাবাড়ি, বাবনার টেক, ফুলবাড়িয়া, সিরাজ মার্কেট, ধরঙ্গার টেক, নয়ানগর, চন্ডালভোগ, ডিয়াবাড়ী, নলভোগ, পাকুড়িয়া, আহালিয়া, দলিপাড়া, বাউনিয়া, উলুদাহা, বাদালদী ও তুরাগের ফাঁড়ি এলাকাসহ বেশ কিছু এলাকা। দুর্ভোগ লাঘবের জন্য এসব রাস্তা দ্রুত মেরামতের দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী। এই তিনটি ওয়ার্ডে রয়েছেন তিনজন ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও ১ জন সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর। এ এলাকা ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) অন্তর্ভুক্ত হলেও এখানে তেমন নাগরিক সুবিধা নেই। এখানকার অধিকাংশ মানুষ নিন্ম ও মধ্যবিত্ত আয়ের। রাজধানী সংলগ্ন অল্প টাকায় বাড়ি ভাড়া পেয়ে এ এলাকাটিতে আশ্রয় নেন স্বল্পআয়ের বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ। এ এলাকার উন্নয়নের তেমন উদ্যোগ নেয়া হয় না। পর্যাপ্ত পয়োনিষ্কাশন ও ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় একটু বৃষ্টিতেই এখানকার রাস্তাঘাট তলিয়ে যায়। কেউ কেউ প্রয়োজনের তাগিদে বাড়ির প্রবেশদ্বার উঁচু করলেও ভেতরে পানি জমায় বৈদ্যুতিক মোটর দিয়ে পানি সরাতে হয়। কামারপাড়া এলাকার অটোরিক্সা চালক শান্ত মিয়া বলেন, তুরাগের প্রধান প্রধান সড়ক এতটাই খারাপ যে বিভিন্ন স্থানে বড় বড় গর্তের কারণে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটে। কামারপাড়া থেকে হানিফ আলীর মোড় হয়ে সরকার বাড়ি পর্যন্ত প্রায় এক কিলোমিটার রাস্তা পার হতে সময় লাগে এক ঘণ্টা। তিনি এসব সড়ক দ্রুত সংস্কারের দাবি জানিয়েছেন। গুলগোলার মোড় এলাকার বাসিন্দা মফিজুল ইসলাম বলেন, এলাকার রাস্তা ঘাট এতই খারাপ জরুরী প্রয়োজনে উত্তরা বা টঙ্গী গেলে ১০/১৫ মিনিট সময় লাগার কথা। সেখানে এখন সময় লাগে কয়েক ঘণ্টা। নলভোগ এলাকার বাসিন্দা শফিকুল ইসলাম বলেন, নয়ানগর মাদ্রাসা থেকে নলভোগ হয়ে খালপাড় যাওয়ার রাস্তাটা এতই খারাপ যে যান চলাচল বন্ধের উপক্রম হয়ে পড়েছে। এখন আমাদের হেঁটে জেতেও অনেক সমস্যা হয়। বাবনার টেক এলাকার বাসিন্দা বৃদ্ধ সামাদ মিয়া ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আগে আমরা ইউনিয়ন পরিশোধের অধিনে ছিলাম, এখনকার চেয়ে তখন অনেক ভাল ছিলাম। কয়েক বছর আগে আমাদের এলাকাকে সিটি কর্পোরেশনের আওতায় নেওয়া হয়। তখন আমরা মনে করেছিলাম আমরা সিটি কর্পোরেশনের আধুনিক সুযোগ সুভিধা পাব। এখন দেখি উল্টোটা। বর্তমানে আমাদের বাবনার টেকের প্রধান সড়কটি সহ বিভিন্ন শাখা সড়ক গুলো একেবারে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। রাস্তার মাঝে মাঝে বড় বড় গর্ত হয়ে পুকুরে পরিণত হয়েছে। আর এসব দেখেও না দেখার ভান করে বসে আছেন আমাদের জন প্রতিনিধিরা। এ বিষয়ে জানতে ৫২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফরিদ আহম্মেদ ও ৫৩ ওয়ার্ড কাউন্সিলর নাসির উদ্দিনের ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে কয়েকবার ফোন দিলেও তারা ফোন রিসিভ করেননি। তারপর ৫৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর হোসেন যুবরাজের ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বারে ফোন দিলে সে ফোন রিসিভ করে বলে আমি এখন ব্যাস্ত আছি পরে কথা বলবো বলে ফোন রেখে দেন। এর পর সংরক্ষিত ওয়ার্ডের নারী কাউন্সিলর কমলা রানী মুক্তার ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বারে ফোন দিলে তিনি বলেন, আমার ৫২, ৫৩ ও ৫৪ নং ওয়ার্ডের রাস্তাঘাটের নাজুক অবস্থা। এই ব্যাপারে আমরা মেয়র মহোদয়কে অবগত করেছি। তিনি আমাদের আশ্বস্ত করেছেন আগামী জানুয়ারি মাসের মধ্যেই উক্ত ওয়ার্ডের প্রধান প্রধান সড়কের মেরামত করে দিবেন। পর্যায় ক্রমে শাখা রোডের কাজও সম্পূর্ণ হবে। তিনি আরও বলেন, আমরা আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি, যাতে করে দ্রুত তুরাগের রাস্তা ঘাটের উন্নয়ন কাজ করা সম্ভব হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত