নওগাঁর মান্দায় এসিল্যান্ড এর উদ্যোগে পেল ভূমি অফিসে যাবার নতুন রাস্তা

নওগাঁর মান্দায় এসিল্যান্ড এর উদ্যোগে পেল ভূমি অফিসে যাবার নতুন রাস্তা

হাবিবঃ
নওগাঁর মান্দা উপজেলার কশব বিষ্ণুপুর ইউনিয়ন ভূমি অফিসটি অবস্থিত। পাঁজরভাঙ্গা বাজারের পশ্চিম পার্শ্বে আত্রাই নদীর কূল ঘেঁষে প্রায় শত বছরের পুরনো এই তহসিল অফিস অত্র ইউনিয়নের বাসিন্দাদের ভূমি সংক্রান্ত সকল সেবা প্রদান করে থাকে। আগের যুগের যোগাযোগ ব্যবস্থা নদী কেন্দ্রিক হওয়ায় উক্ত অফিসে সরাসরি যাবার কোন রাস্তা ছিল না। অফিসের পাশে পাঁজরভাঙ্গা মিঠাপুকুর সড়কটি প্রায় ২০০ মিটার দূরে অবস্থিত কিন্তু আশেপাশে কোন খাস জমি না থাকায় এবং ব্যাক্তি জমি হওয়ায়, সেখানে রাস্তা করা সম্ভব হয়নি পরবর্তী এসিল্যান্ড এসএম হাবিবুল হাসান এর উদ্যোগে উক্ত জমির মালিকগন অফিসে যাওয়ার রাস্তা দিতে রাজি হন এরই প্রেক্ষিতে গতকাল ১৫ জানুয়ারি রাস্তাটির উদ্বোধন করা হয়েছে। উক্ত রাস্তার কাজ সম্পন্ন ব্যক্তিগত উদ্যোগে তিনি এলাকাবাসীকে সন্তুষ্ট করতে সক্ষম হয়ে এলাকাবাসী উক্ত রাস্তার কাজে স্বেচ্ছাশ্রম দিছেন। 

পাঁজরভাঙ্গা বণিক সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ একরামুল হক বলেন রাস্তা না থাকায় উক্ত তহশিল অফিসে ভ্যান বা মটরসাইকেল কোন কিছুই নিয়ে যেতে পারিনা এসিল্যান্ড সাহেবের উদ্যোগে আজ যে রাস্তাটির কাজ শুরু হয়েছে তা অত্র ইউনিয়ন বাসির দীর্ঘদিনের দাবি ছিল।

স্থানীয় বাসিন্দা সাইফুল ইসলাম জানান উক্ত রাস্তাটি এই এলাকার চেহারা  পাল্টে দিবে।

না বলে বৃদ্ধ বনিতা অতি সহজেই তাদের ভূমি বিষয়ক সেবা নিতে দালাল ছেলে অফিসমুখী হবে জমির মালিক মৃত আবুল করিমের পুত্র মোঃ দুলাল হোসেন হারুনুর-রশিদ জানান এসিল্যান্ড সাহেবের অনেকদিন আগে থেকেই আমাদের যে উক্ত রাস্তাটি করার জন্য জমি দান করে সহযোগিতা করতে বলেন কিন্তু আমরা বেশ কয়েকজন শরিকানা থাকায় সিদ্ধান্ত নিতে দেরি হলো তবে ত চিল অফিসে যাবার জন্য রাস্তার জমি দিতে পারে আমাদেরও খুব ভালো লেগেছে। 

এই উদ্যোগের ব্যাপারে এসিল্যান্ড এস এম হাবিবুল হাসান কে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি জানান, আমি এখানে যোগদান করে তফসিল অফিস পরিদর্শন করতে এসেই আত্মজ্ঞানই তে ভুগতে থাকি এখানে কোন রাস্তা না থাকায় পাঁজরভাঙ্গা মিঠাপুকুর সড়ক থেকে সরাসরি এলিট তাহলে এই অঞ্চলের মানুষের অফিসে আসা যেমন সহজ হবে তেমনি মানুষজন দালাল নির্ভর না হয়ে নিজে অফিসে এসে তার সেবাটি গ্রহণ করতে পারবে এই চিন্তা থেকেই জমির মালিকদের সাথে একাধিকবার বৈঠক করেও কোন ফল না হওয়ায় এলাকাবাসী দের সাথে সম্পর্ক গড়ে তুলি এতে সকলের দাবির প্রেক্ষিতে জমির মালিক গ্রহণ ও রাস্তা ঠিক করতে সম্মত হন উক্ত কাজে সহযোগিতা করায় আমি এলাকাবাসীর আমার কসম বিষ্ণুপুর ইউনিয়ন ভূমি অফিসের কর্মকর্তা কর্মচারী বণিক সমিতির স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের নিকট কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত