মশা,ধুলাবাতাস আর যানজটের শহর ঢাকা। নগর পরিকল্পনাবিদরা কেবল কথায় খই ফুটান বাস্তবের চিত্র ভিন্ন

মশা,ধুলাবাতাস আর যানজটের শহর ঢাকা। নগর পরিকল্পনাবিদরা কেবল কথায় খই ফুটান বাস্তবের চিত্র ভিন্ন

অদ্রি আলাউদ্দিন: আশি দশকের দিকে শহরবাসীর মুখে মুখে একটি প্রবাদ শুনা যেত “রাতে মশা দিনে মাছি এই নিয়ে ঢাকায় আছি” প্রবাদটির প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই বলছি। গত ত্রিশ বছরে শহর গ্রামগঞ্জে অনেক কিছুই পরিবর্তন হয়েছে, ছোঁয়া লেগেছে আধুনিকতার। শিক্ষা, সাহিত্য, সংস্কৃতির ব্যপক পরিবর্তন এসেছে। অনেক চড়াই উৎরাই পেড়িয়ে দেশ এখন মধ্যম আয়ের দেশ। বিশ্বের উন্নত দেশের মতো এগিয়ে যাচ্ছে সময়ের সাথে পাল্লাদিয়ে। তৈরী হচ্ছে স্বপ্নের পদ্মাসেতু, আকাশচুম্বী অট্রালিকা, আন্ডার পাস, উড়াল সেতু, সাগর শাসন করে কক্সবাজারে তৈরী হচ্ছে দৃষ্টিনন্দন বিমানবন্দর। মেট্রোরেলের মতো ব্যয়বহুল সব মেগা প্রকল্প। এই সব কিছুই তৈরী হচ্ছে দেশের মানুষের জীবনমান উন্নয়নের জন্য। মানুষ যেন শিক্ষা, সাহিত্য, সংস্কৃতি ব্যবসা, বাণিজ্য ও বিনোদনে এগিয়ে যেতে পারে। নিরাপদে পথ চলতে পারে, সবুজের মাঝে ফেলতে পারেন সস্তির নিঃশাাস । তারপরও যেন পরিকল্পিত ঢাকা নগরীর অপরিকল্পিত নগরায়ন স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। উপরিকাঠামো উন্নয়ন দেখে হয়তো আমরা আনন্দে আত্মহারা কিন্তু বাস্তবে অন্তর কাঠামোর চিত্রটি একেবারেই ভিন্ন। একদিকে ধুলাবালি, দীর্ঘ যানজট, শব্দদূষন, অপরিকল্পিত আবাসন, যত্র তত্র গাড়ী পাকিং, ফুটপাত দখল অন্যদিকে ময়লা আবর্জনায় বেড়ে উঠা বিশাক্ত মশা মাছির উৎপাত। কোথাও এক মিনিট দাঁড়ালে রেহাই নেই লক্ষ মশার আক্রমন থেকে। সিটি কর্পোরেশনের এই উদাসিনতায় নগরবাসী এখন রিতিমতো বাকরুদ্ধহীন। তাঁরা কেবলি কথায় খই ফুটান বাস্তবের চিত্র এর উল্টো। কোন ক্রমেই মশা নিধন করতে পারছেনা। এই ব্যর্থতার দায় কার ? এই প্রশ্নে জবাব হয়তো আমরা দিতে ব্যর্থ। ভর দুপুরে মনে হবে এ যেন কোয়াশাস্নাত এক স্বপ্নের শহর। আসলে কোন কুয়াশা নয়, ধুলা বাতাসে সুস্থ শহর অন্ধকারাছন্ন হয়ে পড়ে। এতে বয়স্করা যতটা আক্রান্ত হচ্ছে তারচেয়ে বেশি আক্রান্ত হচ্ছে শিশুরা। নগরীর এই বায়ু দূষনের ফলে অ্যাজমা, হাপানিসহ নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে সকল বয়সের মানুষ। উত্তরে আব্দুল্লাপুর, দক্ষিণে সদরঘাট,পূর্বে যাত্রাবাড়ী আর পশ্চিমে গাবতলী এই সবগুলো প্রবেশমুখ যেন এক একটি ভোগান্তির কেন্দ্রবিন্দু। অন্যদিকে যানজট একটি আতঙ্কের নাম, এর প্রভাব শুধু ঢাকায় নয়, দেশের প্রতিটি জেলা শহরে একই চিত্র । গভীর রাতেও যানজট থেকে রেহাই নেই। এই যানজটের কারণে ভোগান্তির কোন সীমা-পরিসীমা নেই। গত এক যুগ আগের তথ্যমতে ঢাকায় ঘন্টায় গতি ছিল ২০ কিলোমিটার বর্তমানে যানজটের কারণে ঘন্টায় মাত্র পাঁচ কিলোমিটারে দাড়িয়েছে। পাশাপাশি যানজটের কারণে শুধু মাত্র ঢাকা মহানগরীতে সব শ্রেণি পেশা মানুষের দৈনিক ৫ লাখ কর্মঘন্টা নষ্ট হচ্ছে। যার আর্থিক ক্ষতি বছরে প্রায় ৩৭ হাজার কোটি টাকা। যার কারণে ধীরে ধীরে দেশের অগ্রগতি থেমে যাচ্ছে। দেশের রফতানি বাণিজ্য থেকে শুরু করে শিক্ষা ও পর্যটন খাতেও নেতিবাচক প্রভাব পরতে শুরু করেছে। শুধু তাই নয়, অপরিকল্পিত ভাবে রাস্তা মেরামত গ্যাস, বিদ্যুৎ ,পানি, ডিস, ইন্টারনেট লাইন মেরামতের কারণে দীর্ঘ যানজট লেগে থাকে ঘন্টারপর ঘন্টা। এই সকল যানজটের কারণে দীর্ঘক্ষণ গাড়ির ইঞ্জিন চালু থাকার কারণে নগরীর বায়ু দূষিত হচ্ছে। ফলে অ্যাজমা,হাপানি সহ নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে মানুষ। এসব সমস্যার সমাধান নতুন করে ভাবতে হবে নগর পরিকল্পনাবিদদের।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত