মেসিকে হারিয়ে ব্যালন ডি’অর জয় করল লেভানডস্কি

মেসিকে হারিয়ে ব্যালন ডি’অর জয় করল লেভানডস্কি

রাত পোহালেই সোমবার ঘোষণা করা হবে ফুটবলের এই প্রজন্মের সবচেয়ে মর্যাদাকর পুরস্কার ব্যালন ডি’অর বিজয়ীর নাম। গত বছর করোনার কারণে বাতিল হয়ে যাওয়ায় এবারের আয়োজন নিয়ে রয়েছে বাড়তি উত্তেজনা। বিশেষ করে টানা এক দশক এই পুরস্কারটিকে নিজেদের সম্পদ বানিয়ে ফেলা লিওনেল মেসি ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে ছাপিয়ে সবচেয়ে বেশী যে নামটি উচ্চারিত হচ্ছে তিনি হলেন বায়ার্ন মিউনিখের পোলিশ তারকা রবার্ট লেভানডস্কি। গতবার বাতিল না হলে নিশ্চিতভাবেই ব্যালন ডি’অর জয় করতেন লেভানডস্কি। কারণ গত মৌসুমে বুন্দেসলিগায় মাত্র ২৯ ম্যাচে করেছিলেন রেকর্ড সর্বোচ্চ ৪১ গোল। ২০২০ সালে ফিফা বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার ছিনিয়ে নিয়েছিলেন ৩৩ বছর বয়সী এই পোলিশ স্ট্রাইকার। নতুন মৌসুমেও তিনি দারুন ছন্দে থেকে কোচ জুলিয়ান নাগলসম্যানকে স্বস্তি এনে দিচ্ছেন। এবারের মৌসুমে ইতোমধ্যেই ২০ ম্যাচে করেছেন ২৫ গোল। গত এক দশকে ১২টি ব্যালন ডি’অরের মধ্যে ১১টি মেসি ও রোনালদো একে অপরের মধ্যে ভাগাভাগি করে নিয়েছেন। রিয়াল মাদ্রিদকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা ও ক্রোয়েশিয়াকে বিশ্বকাপের ফাইনালে খেলতে সহযোগিতা করার জন্য ২০১৮ সালে  লুকা মড্রিচ পেয়েছিলেন ব্যালন ডি’অর। যদিও এবারও মেসিকে নিয়ে চলছে জোড় আলোচনা। ক্যারিয়ারের নতুন সিদ্ধান্তে পিএসজিতে পাড়ি জমানোর আগে গত মৌসুমে শৈশবের ক্লাব বার্সেলোনার হয়ে লা লিগায় করেছেন ৩০টি গোল। বাড়তি পাওনা হিসেবে আর্জেন্টিনার অধিনায়ক হিসেবে পেয়েছেন কোপে ডেল রে শিরোপা। জুলাইয়ে মারাকানা স্টেডিয়ামে চির প্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলকে পরাজিত করে কোপার শিরোপা জিতেছিল আর্জেন্টিনা। এর মাধ্যমে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ২৮ বছরের শিরোপা খরা কাটিয়েছে আর্জেন্টাইনরা। এ পর্যন্ত রেকর্ড ৬টি ব্যালন ডি’অর শিরোপা বিজয়ী মেসি তার এই সংখ্যা বাড়ানোর দ্বারপ্রান্তে রয়েছেন। কাতালান ডেইলি স্পোর্টকে সম্প্রতি মেসি বলেছেন, ‘আমার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বড় পুরস্কার হচ্ছে জাতীয় দলের হয়ে কিছু অর্জন করা। এই শিরোপার জন্য আমাদের দিনের পর দিন অপেক্ষা করতে হয়েছে। এটা আমার ক্যারিয়ারের সেরা পুরস্কার। তবে এর সাথে যদি ব্যালন ডি’অর আসে তবে সেটা হবে বাড়তি পাওনা। বিশেষ করে সাতটি ব্যালন ডি’অর পাওয়া সত্যিই বিশেষ কিছু।’ রোনালদো সর্বশেষ ২০১৭ সালে ব্যালন ডি’অর জয় করেছেন। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সর্বকালের সর্বোচ্চ এই গোলদাতা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে যোগ দেবার পর ইউরোপে খেলা পাঁচটি ম্যাচের সবকটিতে গোল করেছেন। যদিও ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ ব্যালন ডি’অর জয়ের দৌড়ে এবার তিনি কিছুটা হলেও পিছিয়ে রয়েছেন। ক্লাব ও জাতীয় দলের হয়ে কোন শিরোপাই জিতেননি রোনালদো। বাছাইপর্ব শেষে রোনালদোর পর্তুগালের বিশ্বাকাপে খেলা এখনো অনিশ্চিত। তবে রোনালদোর একটি আকাঙ্খার কথা সম্প্রতি গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। মেসিকে টপকে সবচেয়ে বেশিবার ব্যালন ডি’অর জয় করে তিনি অবসরে যেতে চান। ব্যালন ডি’অর দেয় ফরাসি পত্রিকা ফ্রান্স ফুটবল। সংবাদমাধ্যমটির সম্পাদক হওয়ার সুবাদে পাসকাল ফেরে ফুটবলের মহাতারকাদের সঙ্গে কথা বলার সুযোগ পান। সে সুবাদেই রোনালদোর মনের গোপন খবর জেনেছেন। নিউইয়র্ক টাইমসকে পাসকাল বলেছেন, ‘রোনালদোর একটাই লক্ষ্য আর তা হলো মেসির চেয়ে বেশি ব্যালন ডি’অর নিয়ে অবসরে যাওয়া। আমি জানি কারণ আমাকে তিনি নিজে এটা বলেছেন।’ এই পুরস্কার জয়ে মাদ্রিদের ফরাসি তারকা করিম বেনজেমাকে সমর্থন করেছেন থিয়েরি অঁরি, জিনেদিন জিদান ও স্প্যানিশ টেনিস তারকা রাফায়েল নাদাল। যদিও জাতীয় দলের সাবেক সতীর্থ ম্যাথু ভালবুয়েনাকে জড়িয়ে সেক্স টেপ কেলেঙ্কারিতে ফরাসি আদালতের রায়ে এক বছরের জন্য বহিষ্কারের শাস্তি পেয়েছেন বেনজেমা। ৩০ জনের সংক্ষিপ্ত তালিকায় থাকা ইউরো ২০২০ বিজয়ী ইতালির পাঁচজন সদস্যেরর মধ্যে অন্যতম হলেন চেলসি মিডফিল্ডার জর্জিনহো। এ ছাড়া নেইমার ও লিভারপুলের মিশরীয় তারকা মোহাম্মদ সালাহর সাথে রয়েছেন কিলিয়ান এমবাপ্পে ও আর্লিং ব্রট হালান্ট।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত