যাত্রী সেজে ডাকাতি ; আটকে রেখে মুক্তিপন আদায়

যাত্রী সেজে ডাকাতি ; আটকে রেখে মুক্তিপন আদায়

কামরুল হাসান রনি: রাজধানীর উত্তরা ৯নং সেক্টরের হোটেল হাসনায় (পার্চেস ম্যানেজার) খরিদ ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে আছেন মো: আলী আকবর। গত ২৫মে বৃহস্পতিবার ছুটি পেয়ে গ্রামের বাড়ি কুমিল্লা যাওয়ার উদ্দেশ্যে আব্দুল্লাহপুর থেকে কাঁচপুরে যান তিনি। সেখানে আগে থেকেই যাত্রীসেজে একটি নোহা গাড়িতে ফাঁদ পেতে বসে ছিল ৪/৫জন ডাকাত। আলী আকবর সামনে যেতেই তাকে তার গন্তব্য স্থান জানতে চেয়ে তারাও সেখানে যাচ্ছে বলে কম খরচে তাদের সাথে যাওয়ার জন্য প্রস্তাব দেয় ডাকাত দলের সদস্যরা।

আলী আকবর সড়ল মনে তাদের প্রস্তাবে রাজি হয়ে বিকেল সাড়ে ৪টায় গাড়িতে উঠেন এবং কিছু দূর যাওয়ার পরেই পরিকল্পিতভাবে ডাকাতরা আলী আকবরের হাত পা ও মুখ বেঁধে এলোপাথারি মার শুরু করে তার সাথে থাকা নগদ ৫,৩০০ (পাঁচ হাজার তিনশত) টাকা নিয়ে নেয়। পরে আলী আকবরের মোবাইল থেকে তার বাড়িতে ফোন করে ডাকাতরা ১ লক্ষ টাকা মুক্তিপন দাবি করে এবং দ্রুত টাকা ব্যবস্থা করে না দিলে আলী আকবরকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেয় ডাকাত দল।

কোন উপায় না পেয়ে আলী আকবরের পরিবার বিভিন্ন জায়গা থেকে টাকা ধার করে ৮০ হাজার টাকা ডাকাতদের কথা মতো পাঠানোর পর ডাকাতদল আলী আকবরের চোখে মলম লাগিয়ে দিয়ে ফেনী জেলার ফাজিলপুর এলাকার কাছেই রাস্তায় ফেলে চলে যায়। পরে স্থানীয় লোকজনের সহযোগীতায় তাকে ফেনী মেডিকেল হাসপাতালে নিয়ে যান। পরে চিকিৎসা শেষে ফেনী থানায় গিয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেন আলী আকবর।

এবিষয়ে আলী আকবর জনগণকে সচেতন হওয়ার জন্য অনুরোধ করেছেন। তার মতো আর কেউ যেনো এমন বিপদে না পরে তাই অপরিচিত কোন প্রাইভেট কার বা নোহা গাড়িতে না উঠে এজন্য বিশেষ অনুরোধ করেছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত