শিরোনাম :
রাজধানীর উত্তরখানে ইজিবাইক থেকে চাঁদাবাজী বন্ধে প্রতিবাদ মিছিল দেওয়ানগঞ্জে নির্বাচনী আচরণ বিধি ও আইন শৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় সভা বড়াইগ্রামে তিন দিনব্যাপী কৃষি প্রযুক্তি মেলা শুরু পিরোজপুর জেলা আইনজীবী সমিতির দু গ্রুপের সংঘর্ষে আহত -১ সাভারে সেনাবাহিনীর আরভিএন্ডএফ কোরের বাৎসরিক অধিনায়ক সম্মেলন অনুষ্ঠিত ‘আমরা কারো সাথে যুদ্ধে জড়াব না : প্রধানমন্ত্রী যাত্রাবাড়ী ও কেরাণীগঞ্জে  কিশোর গ্যাং গ্রুপের ৫০ সদস্য গ্রেফতার বাগাতিপাড়ার বই মেলায় হাসান হাফিজুর’র দুটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন মোরেলগঞ্জে যুগান্তরের ২৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত শিশু অপহরন মামলায় ঠাকুরগাঁওয়ে সাংবাদিক সহ ৩ জনের বিরুদ্ধে র্চাজ গঠন
রাজধানীতে অবৈধ অটোরিকশার লাইসেন্সের নামে নামধারী কিছু পাতি নেতার লাগামহীন চাঁদাবাজী

রাজধানীতে অবৈধ অটোরিকশার লাইসেন্সের নামে নামধারী কিছু পাতি নেতার লাগামহীন চাঁদাবাজী

রাজধানীতে দিনে কোটি টাকার চাঁদাবাজি। শক্তিশালী  চাঁদাবাজচক্র নিষিদ্ধ ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক ও অটোরিকশা সচল রেখেছে। উচ্চ আদালতের নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও এগুলো বন্ধ করার উদ্যোগ নেই কারোও, বরং দিন দিন এগুলোর সংখ্যা আশঙ্কাজনক হারে বেড়েই চলেছে। প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা সহ প্রান হানির ঘটনা বাড়ছে যানজট,আর জনসাধারণের ভোগান্তি। জানা গেছে, যানজটের নগরী ঢাকার ব্যস্ততম রাস্তা গুলো দখল করে যত্রতত্র গড়ে উঠেছে অবৈধ ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক (অটোরিকশা) ও ফিটনেসবিহীন লেগুনার স্ট্যান্ড। ফলে তীব্র যানজটের কারণে ভোগান্তিতে পড়ছেন পথচারীরা। অপরদিকে এসব যানবাহনকে পুঁজি করে ক্ষমতাসীন দলের কিছু অসাধু নেতা ও পুলিশ দৈনিক লাখ লাখ টাকা চাঁদাবাজি করছে বলে অভিযোগ রয়েছে। এয়ারপোর্ট থেকে শুরু করে  মোহাম্মদপুর, মিরপুর, দারুস সালাম, কাফরুল, পল্লবী, উত্তরা, উত্তরখান, দক্ষিণখান, খিলগাঁও, সবুজবাগ, রামপুরা, বাড্ডা,সহ  তুরাগ থানা ও উত্তরা পশ্চিম থানা এলাকার অলি গলিতে অবাধে চলছে ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক ও অটোরিকশা। পুলিশের চোখের সামনেই দূরদূরান্ত প্রভাবে চলাচল করছে অহরহ, এতে করে বাড়ছে যানজট। স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের জন্যও চরম ভোগান্তির সৃষ্টি করছে ইজিবাইক সহ ও অবৈধ অটোরিকশা। প্রায়ই ঘটাচ্ছে দুর্ঘটনা প্রশাসন যেনো কাঠের চশমা পরে রয়েছে। নিষিদ্ধ এ যানবাহনগুলোর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না। বিআরটিএর ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তার সাথে কথা বলে জানা গেছে, জনবলের অভাবে রাজধানীর সব এলাকায় এসব যানবাহনের বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা সম্ভব হয়ে ওঠে না (প্রকাশিত নিউজ সুত্রে) । তারপরও বিভিন্ন সময় মোবাইল কোর্টের অভিযানে বহু অটোরিকশার মোটর খুলে ফেলা এবং অনেক ইজিবাইক ডাম্পিংয়ে পাঠানোর দাবি করেন তিনি।রাজধানীর তুরাগে এলাকায় কয়েকটি রুটেই চলাচল করছে হাজারো ইজিবাইক ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা। এ রুটগুলো হচ্ছে— উত্তরা পশ্চিম থানা এলাকার কামারপাড়া ব্রিজ থেকে তুরাগের,গুলগুলার মোড় হয়ে নয়ানগর। আবার নয়ানগর থেকে উত্তরার খালপাড় হয়ে পঞ্চপটি , এবং কামারপাড়া ব্রিজ  থেকে স্টেশন রোডসহ অন্যান্য পয়েন্ট। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, এ এলাকার প্রতিটি ইজিবাইক থেকে প্রতিদিন বিভিন্ন অংকে চাঁদা আদায় করা হয়। এ ক্ষেত্রে পুলিশের হয়ে কাজ করে স্থানীয় কয়েকটি চক্র। চাঁদার টাকা থেকে থানা পুলিশ, স্থানীয় রাজনৈতিক বেনারের নেতা নামক সন্ত্রাসী, ট্রাফিক বিভাগসহ অন্যান্য সংস্থার চাহিদা পূরণ হয়ে থাকে। চাঁদার টাকা না দিলে লাইনম্যান, ট্রাফিক পুলিশ ও থানা পুলিশ সেসব গাড়ি আটক করাসহ সংশ্লিষ্ট চালকদের ওপর নির্যাতন চালায় বলেও অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে।তুরাগেও রয়েছে কিছু নামধারী রাজনীতিবিদ  সেখানেও চাঁদাবাজিতে মোটা অঙ্কের ভাগ বসিয়ে কোটি টাকার মালিক হওয়ার অভিযোগ রয়েছে। ‘লাইসেন্স’এর নামে প্রতি ইজিবাইক ও অটোরিকশা থেকে এক থেকে দেড় হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। হাই কোর্টের স্পষ্ট নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্ত্বেও কোন ক্ষমতাবলে স্থানীয় চাঁদাবাজরা এসব যান চালাচলের লাইসেন্স দেয়, তা নিয়ে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন।  উত্তরা ও তুরাগের  স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের নেতৃত্বে প্রায় কয়েক হাজার অটোরিকশা নিয়ন্ত্রিত হয়। যার প্রতিটি থেকে দৈনিক ও মাসিক  চাঁদা আদায় করা হচ্ছে। এতে করে যেমন বিদ্যুতের অপচয় ঠিক তেমনী তারে বিদ্যুৎ খাওয়ার মতোই চুরিও হয়। বিদ্যুৎ বিভাগের একাধিক সূত্র জানায়, অবৈধ ইজিবাইক ও অটোরিকশায় চার্জ দেওয়ার নামে প্রতিদিন দেশে অন্তত ৩০- ৩৫ লাখ ঘণ্টা কিলোওয়াট বিদ্যুৎ খরচ হয়। বাণিজ্যিকভাবে এর মূল্য প্রায় তিন কোটি টাকা বলে জানা গেছে।  সহজ পদ্ধতিতে গড়ে তোলা গাড়ির নামই হচ্ছে ইজিবাইক আর ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা। বাহন দুটি খোদ রাজধানীতেই কঠিন দুর্ভোগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। লক্ষাধিক ইজিবাইক আর ৩০ হাজারেরও বেশি ব্যাটারিচালিত রিকশা-ভ্যান নাগরিক জীবনকে রীতিমতো বিষ ফুড়া বানিয়ে তুলেছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত