শিরোনাম :
দিঘলিয়া উপজেলা শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনে ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী  নওগাঁয় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর এর অভিযানে ৬কেজি গাঁজাসহ আটক-১ নাহিদুজ্জামান বাবুর স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি  সিরাজগঞ্জে গরু চুরিতে বাধা দেওয়ায় পিকআপের চাপায় গৃহবধু হত্যা,ডাকাত দলের ৪ পলাতক আসামী গ্রেফতার বড়াইগ্রামে পাটোয়ারী কোয়ালিটি এডুকেয়ার ইনস্টিটিউটে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতা অনুষ্টিত পূর্বধলায় সরকারী চাকুরীজীবী হওয়া সত্বেও করেন সাংবাদিকতা খুলনায় মাসব্যাপী একুশে বইমেলা শুরু ,বই ছাড়া জ্ঞান অর্জন করা যায় না -সিটি মেয়র বিভাগীয় সমাবেশ উপলক্ষে ঠাকুরগাঁওয়ে বিএনপির বর্ধিত সভা পাতাল রেল নির্মাণ কাজের উদ্বোধন রোহিঙ্গা প্রসঙ্গে ‘বিশ্ব হাত গুটিয়ে বসে থাকলে আবারো ২০১৭ সালের পুনরাবৃত্তি হবে :জাতিসংঘ
শাহজাদপুরে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মচারীদের মাঝে অফিসিয়াল পোশাক ও শীতবস্ত্র বিতরণ 

শাহজাদপুরে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মচারীদের মাঝে অফিসিয়াল পোশাক ও শীতবস্ত্র বিতরণ 

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি :
রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৭তম গ্রেড থেকে ২০তম গ্রেড পর্যন্ত কর্মচারীদের মাঝে অফিসিয়াল পোশাক ও শীতবস্ত্র বিতরণ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ শাহ্ আজম। রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মহোদয়ের দপ্তরে অফিসিয়াল পোশাক ও শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়।
এসময় উপাচার্য মহোদয় বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মচারীরা দীর্ঘদিন ধরে কাজ করে যাচ্ছে, এতদিন ধরে আমরা দেখছি এই বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে মানুষের মনে নানান রকম সংশয় ছিল এবং মানুষের মধ্যে যে শ্রদ্ধার জায়গাটা ছিলো সেই জায়গা থেকে আমরা কিছুটা হলেও দূরে ছিলাম। সেক্ষেত্রে আমাদের যে কর্মচারিরা আছেন তারা শিক্ষার্থীদের এবং অন্যান্য মানুষের কাছে থাকেন, তারাই আমাদের সেবা প্রদান করে থাকেন, এক্ষেত্রে প্রত্যেকেরই সেবা দেবার মানসিকতাটা রাখতে হবে এবং অফিসের নিয়মকানুন মেনে চলতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ে কেউ সেবা নিতে এসে কার কাছ থেকে সেবাটি পাওয়া যাবে সেই বিষয়টি যেন সহজেই অনুমান করতে  পারেন সেজন্যই আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মচারিদের পোশাকের ব্যবস্থা করেছি।
উপাচার্য মহোদয় বলেন, আমাদের সময়েই প্রথম আপনাদেরকে পোশাক দিয়েছি এবং এখন দ্বিতীয়বারের মতো পোশাক প্রদান করা হচ্ছে। তিনি বলেন, আপনারা এগুলো পরিধান করবেন এবং অফিসের নিয়ম মেনে চলবেন।
রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় যে লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল আপনারা সে চেতনা ধারণ করবেন এবং এই বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে যে সামাজিক জনশ্রুতি ছিল  অসম্মানজনক একটি জায়গায়, তা ক্রমেই কাটিয়ে উঠে একটি গতিশীল বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে আমরা নিজেদের গড়ে তুলতে সমর্থ হয়েছি, তা সম্ভব হয়েছে আপনাদের সহযোগিতা, ঐক্য এবং ঐকান্তিক প্রচেষ্টার কারণে, যদিও আমাদের এখন পর্যন্ত স্থায়ী ক্যাম্পাস হয় নি।,
তিনি আরো বলেন, আপনাদের পেশাদারী মনোভাব নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে নিবেদিত হয়ে কাজ করতে হবে, যারা পেশার সঙ্গে অসঙ্গতিপূর্ণ কাজের সঙ্গে যুক্ত থাকবেন তাদের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে এবং যারা শুদ্ধাচার ও বিশ্ববিদ্যালয়ের নীতি অনুযায়ী কাজ করবেন তাদের জন্য পুরস্কার এবং পারিতোষিকের ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। তিনি আরো বলেন, আমরা চাই কর্মচারিরা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর আদর্শ, বিশ্ববিদ্যালয়ের যে দর্শন ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা,  তা ধারণ করবেন। চতুর্থ শিল্প বিপ্লব মোকাবেলায় দক্ষ জনশক্তি তৈরি করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের যে টিম কাজ করে যাচ্ছে সেই টিমের গুরুত্বপূর্ণ অংশ হিসেবে আপনারা নিষ্ঠার সঙ্গে  কাজ করে যাবেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর ড. ফিরোজ আহমদ, রেজিস্ট্রার জনাব মোঃ সোহরাব আলীসহ বিশ্ববিদ্যালয়  কর্মকর্তাবৃন্দ।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত