সকল অভিমানের পরিসমাপ্তি, শামিম ওসমান মাঠে

সকল অভিমানের পরিসমাপ্তি, শামিম ওসমান মাঠে

স্টাফ রিপোর্টার: নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর পক্ষে এতদিন নানা অভিমান-ক্ষোভের কারণে নামতে পারেননি বলে জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান। তিনি বলেন, ‘এতদিন নামিনি, মনে অনেক দুঃখ ছিল। তবে আজ থেকে আমি নৌকার পক্ষে মাঠে নামলাম।’

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচন ইস্যুতে সোমবার (১০ জানুয়ারি) এক সংবাদ সম্মেলনে শামীম ওসমান এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘কে প্রার্থী হু কেয়ার। কলাগাছ না আমগাছ— তা না দেখার বিষয় না। এটি শেখ হাসিনার নৌকা, এটি বঙ্গবন্ধুর নৌকা, এটি শেখ রেহানার নৌকা, এটি মুক্তিযোদ্ধার নৌকা। সুতরাং নৌকার বাইরে যাওয়ার কোনো সুযোগ নেই।’

শামীম ওসমান বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জ নৌকার ঘাঁটি। এখানে অন্য কিছু হবে না। প্রার্থী যেই হোক, নৌকার বিপক্ষে যাওয়ার সুযোগ নেই।’

সংবাদ সম্মেলনের শুরুতে শামীম ওসমান বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন খুব ছোট এলাকা। নির্বাচন এলেই আমি কেন এখানে সাবজেক্ট হই। আমার এলাকার ছোট একটি অংশ সিটি করপোরেশনে পড়েছে। নির্বাচন এলেই ইনি বলে আমি ওনার। উনি বলেন আমি ওনার।’

তিনি বলেন, ‘আমি সত্য কথা বলতে পছন্দ করি। সব সত্য এখানে বলতে পারব না। ট্রুথ ইজ বিউচি, বিউটি ইজ ট্রুথ। সত্যের মতো বড় সৌন্দর্য আর নেই। নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচন এলে বিভিন্নভাবে ইস্যু তৈরি করা হয়। কেউ দলের উল্টো দিকে হেঁটে দলের ক্ষতি করছে, কেউ দলের সঙ্গে হেঁটে ক্ষতি করছে।’

শামীম ওসমান বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াতের অত্যাচারের কথা ভুলিনি। বিএনপি-জামায়াত আমাদের বাড়িঘরে আগুন দিয়েছে। বিএনপির লোকেরা আমার বড় ভাইয়ের ৩০০টি গরুর দুধের বানকে ব্লেড দিয়ে কেটেছে। আমার আরেক ভাইকে টর্চার করা হয়েছে। আমাদের বাড়িটি ঘিরে বিএনটি-জামায়াতের ক্ষোভ ছিল। আমাদের বাড়িটিকে বুলডোজার দিয়ে ভেঙে দেওয়া হয়েছিল।’

নারায়ণগঞ্জ নৌকার ঘাঁটি, শেখ হাসিনার ঘাঁটি, বঙ্গবন্ধুর ঘাঁটি, মুক্তিযোদ্ধার ঘাঁটি। এখানে কেউ অন্য খেলার চেষ্টা করবেন না।

শামীম ওসমান বলেন, ‘আমরা রাজনীতি করি। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ হলো আমার শেষ ঠিকানা, শেখ হাসিনা হলো আমার গন্তব্য। আমরা বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের বিচার চেয়েছিলাম সেটি হয়েছে, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হয়েছে, চলমান আছে। এখন নতুন প্রজন্মের জন্য একটি রাজনৈতিক আদর্শ আমাকে রেখে যেতে চাই। সেই চেষ্টা আমাদের করতে হবে।’

শামীম ওসমান বলেন, ‘একে অপরকে দোষারোপ করে ভোট পাওয়া যায়। ভোট পেতে হলে মানুষের কাছে যেতে হবে, মানুষের জন্য কী করবেন তা বলতে হবে। আমি আমার দলের নেতাকর্মীকে বলব, আপনারা মানুষের কাছে যান, মানুষের কাছে ভোট চান।’

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত