শিরোনাম :
হাতীবান্ধায় প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত  সরকারী বাঁধা উপেক্ষা করে ইমরান খানের পিটিআই রাজধানীতে প্রবেশ তিন সদস্যের তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন দাখিল, দিঘলিয়া টেণ্ডারের আড়ালে রাস্তার দু’পাশের সরকারি ১২৮ টি গাছ চুরি পাটকেলঘাটায় কপোতাক্ষ নদের পাশে আর্বজনা,  নদী ভরাটের আশংকা দিঘলিয়া মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মাহফুজুর রহমান জেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষা অফিসার নির্বাচিত নেনেত্রকোনার কেন্দুয়ায় ক্যাবল অপারেটর কট্রোলরুম পুড়ে ছাই ভিক্ষা নয় চাকরি চাই- শারীরিক প্রতিবন্ধী শাহিদা,দেওয়ানগঞ্জ  কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে সভাপতি আওলাদ, সাধারণ সম্পাদক সাত্তার আমি মরিনি,সুস্থ আছি,বেঁচে আছি : হানিফ সংকেত সিরাজগঞ্জের কাজিপুরে তিলের বাম্পার ফলনে কৃষকের মুখে হাসি
নওগাঁয় মুক্তিযোদ্ধাকে কোদাল দিয়ে কুপিয়ে জখম করার ঘটনায় থানায় অভিযোগ

নওগাঁয় মুক্তিযোদ্ধাকে কোদাল দিয়ে কুপিয়ে জখম করার ঘটনায় থানায় অভিযোগ

স্টাফরিপোর্টারঃ নওগাঁ সদর উপজেলার হাঁপানিয়া ইউনিয়নের হাঁপানীয়া মোড়ের রাস্রার পাশে মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ময়েন উদ্দীন ওরফে খোকন এর দোকানের সামনে ইটের খোয়া ও মাটি দিয়ে জলবদ্ধতা সৃষ্টি করে। সেখানে বাঁধা দিতে গেলে মুক্তিযোদ্ধাকে কোদাল দিয়ে কুপিয়ে মারাত্বক জখন করে।অভিযোগ সুত্রে ও সরজমিনে গিয়ে জানা যায়, নওগাঁর হাঁপানীয়া মোড়ের পুর্ব দিকে ( নওগাঁ-রাজশাহী মহা সড়কের পাশে) মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ময়েন উদ্দীনে দোকানের সামনে বিবাদী মৃতঃ করিম দেওয়ানের ছেলে, সোবান দেওয়ান,আলমগীর দেওয়ান ও আলমগীর দেওয়ানের ছেলে অন্তর দেওয়ান পরিকল্পিত ভাবে ইটের খোয়া ও মাটি দিয়ে পানি চলা-চলের রাস্তায় বাঁধ দিয়ে রেখে উঁত পেতে থাকে।  গত ১২/০৭/২০২০ ইং তারিখে বৃষ্টি আসিলে ময়েন উদ্দীনের দোকান ঘর সহ পশ্চিম পার্শের সকল দোকান ঘরে ও বাড়ীর  মধ্য পানি ঢুকতে শুরু করে। এমতাস্থায় মুক্তিযোদ্ধা জলা-বদ্ধতার বাঁধটি কেটে দিতে গেলে, পুর্বে থেকে উঁত পেতে থাকা উক্ত আসামীরা কোদাল,হাঁসুয়া ও লোহার রড নিয়ে এসে এলোপাঁতারী ভাবে মুক্তিযোদ্ধা ময়েন উদ্দীনকে মারতে থাকে। সে চিৎকার করতে লাগলে পার্শের দোকান্দার মোতাহার উদ্দীন এসে বাঁধা দিতে গেলে তাকেও এলোপাতারী ভাবে মার-পিট শুরু করে। সোবহান দেওয়ানের হাতে থাকা কোদাল দিয়ে মুক্তিযোদ্ধা ময়েন উদ্দীনকে হত্যার উদ্দ্যেশে মাথায় কোপ দিতে গেলে, সে মাথাটি একটু সড়িয়ে নিলে,কোপটি ঘাড়ে গিয়ে লেগে  মারাত্বক রক্তাক্ত জখম করে, ও মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। তার বুক পকেটে থাকা ১৫০০০ (১৫ হাজার) টাকাও ছিনিয়ে নেয় আসামীরা। মুক্তিযোদ্ধার ছেলে স্থানীয়দের সহায়তায় মুক্তিযোদ্ধা ময়েন উদ্দীনকে নওগাঁ সদর হাঁসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন।স্থানীয়রা জানায়, আসামীরা অন্যায় ভাবে, পুর্ব পরিকল্পিত ভাবে পানি চলাচলের জায়গায় বাঁধ দিয়েছিলো আর যেভাবে কোদালের কোপটি দিয়েছিলো,,কোপটি মাথায় লাগলে, নিশ্চিত মারা যেত লোকটি।এ বিষয়ে মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী মোছাঃ লায়লা আরজু বাদী হয়ে নওগাঁ সদর মডেল থানায় একটি এজাহার দায়ের করেন।আসমীদের বাড়ীতে গেলে, আসামী সোবহানের স্ত্রী ক্ষুদ্য মেজাজে বলে, ঘটনার পর থেকে বাড়ীতে আসে নাই এবং বাড়ীর সাথে কোন যোগাযোগ নেই। এ ব্যাপারে নওগাঁ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সোহরাওয়ার্দী হোসেনের কাছে মোবাইল ফোনে জানতে চাইলে,  তিনি জানান, এ বিষয়ে মামলা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত