শিরোনাম :
গাজীপুরে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে সৎবাবা গ্রেফতার ৫ম ধাপের মনোনয়ন ফরম কাল থেকে বিক্রি করবে আ.লীগ ; জমাদানের শেষ তারিখ ১ ডিসেম্বর ফরিদপুরে মোটর সাইকেল চোর চক্রের ৫ সদস্য আটক ঝিনাইদহে কৃষককে গলা কেটে হত্যা মানুষের সেবায় রক্তের প্রয়োজনে নবপুষ্প ব্লাড ফাউন্ডেশন লালমনিরহাটের দৈখাওয়ায় মিথ্যা অভিযোগ ও সংবাদ প্রকাশের প্রতিবাদে মানববন্ধন সিরাজগঞ্জে শাহজাদপুরে নব নির্বাচিত এমপি প্রফেসর মেরিনা জাহান কবিতাকে ফুলেল শুভেচছা ঠাকুরগাঁওয়ে তাড়া খেয়ে মরলো নীলগাই লক্ষ্মীপুরে স্বেচ্ছাসেবীদের ভালোবাসায় সিক্ত হারুন-নাহার দম্পত্তি ফরিদপুরে হুমায়ূন স্মরণ উৎসব ও ক্যামেরার কবি আলোকচিত্রী নাসির আলী মামুনের সম্বর্ধনা অনুষ্ঠিত
নারায়ণগঞ্জ দুই ছাত্রলীগ নেতার মাদক সেবনের ছবি ভাইরাল

নারায়ণগঞ্জ দুই ছাত্রলীগ নেতার মাদক সেবনের ছবি ভাইরাল

নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের এক সাংগঠনিক সম্পাদকের মাদক সেবনের ছবি গণমাধ্যমে প্রকাশের দুই সপ্তাহের ব্যবধানে আরও এক ছাত্রলীগ নেতার মাদক সেবনের ছবি ছড়িয়েছে সর্বত্র। এবার সমালোচনায় মহানগর ছাত্রলীগের ‘অর্থ বিষয়ক সম্পাদক’ মির্জা তোফা আহমেদ। তোফার ওই ছবিতে দেখা যাচ্ছে একটি ঘরের বিছানায় বসে মরণ নেশা ইয়াবা সেবনরত। তবে, ছবির বিষয়ে এ নেতা বক্তব্য ‘সব মিথ্যা’।
মাদকের বিরুদ্ধে যখন জিরো টলারেন্স নীতি নিয়েছে বর্তমান সরকার। ছাত্রলীগের পদধারী নেতার মাদক সেবনের ছবিতে বিব্রতবোধ করেন নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগ-ছাত্রলীগের নেতারা।
ছাত্রলীগ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, ফতুল্লা ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের রেল লাইনের পাশের এলাকার বাসিন্দা মির্জা তোফা আহমেদ। কয়েক বছর আগে তোলারাম কলেজে ভর্তি হন। সখ্যতা তৈরি করেন মহানগর ছাত্রলীগের এক শীর্ষ নেতার সাথে। অর্জন করেন সেই নেতার আস্থাও। ২০১৯ সালের ২৮ জুলাই মহানগর ছাত্রলীগের কমিটিতে অর্থ সম্পাদক পদটি ভাগিয়ে নেন এ তোফা। এরপর আর পিছনে তাকাতে হয়নি। অভিযোগ রয়েছে, কলেজ ক্যাম্পাসের আশেপাশে মাদক বিক্রি ও চাষাঢ়া প্লাট ফর্মে ছিনতাইকারীদের মদদ দেওয়ার।
এ ব্যাপারে মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খোকন সাহা বলেন, ‘মাদক সেবন করে থাকলে জগণ্য অপরাধ। তবে, বিষয়টি নিয়ে ভালো করে যাচাই করা উচিত।’
অপরদিকে, মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হাসনাত রহমান বিন্দু বলেন, বঙ্গবন্ধুর নিজ হাতে গড়া সংগঠন হচ্ছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। তার নীতি ও আদর্শের উপরে বর্তমানেও ছাত্রলীগ পরিচালিত হয়। যদি কারো কর্মকান্ডে সংগঠন বিতর্কিত হয়, তাহলে সাংগঠনিক ভাবে যতটুকু ব্যবস্থা নেওয়ার, তা যতদ্রুত সম্ভব ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কারো ব্যক্তি দায় সংগঠন নিবে না। এসব কর্মকান্ড আমাদের জন্য বিব্রতকর।
মাদক সেবন ও বিভিন্ন অভিযোগ নিয়ে ছাত্রলীগ নেতা মির্জা তোফা আহমেদ জানান, এ গুলো সব মিথ্যা। আমি এ গুলোর সাথে আমি জড়িত না।
ছবিতে দেখা যাচ্ছে আপনি মাদক সেবন করছেন, এমন প্রশ্নের উত্তরে ‘মন্তব্য নেই’ বলেই ফোন কেটে দেন।
এ ব্যাপারে ফতুল্লা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আসলাম হোসেন জানান, মির্জা তোফা আহমেদের বিরুদ্ধে পূর্বে আমার কাছে অভিযোগ ছিল না। সে যদি মাদকের সাথে জড়িত হয়, তাহলে অবশ্যই ব্যবস্থা নিবো।
প্রসঙ্গত, গত ৮ অক্টোবর জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সোহানুর রহমান শুভ্রর একটি ইয়াবা সেবনের ছবি প্রকাশে ব্যাপক সমালোচনা সৃষ্টি হয়েছিল।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত