শিরোনাম :
গাজীপুরে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে সৎবাবা গ্রেফতার ৫ম ধাপের মনোনয়ন ফরম কাল থেকে বিক্রি করবে আ.লীগ ; জমাদানের শেষ তারিখ ১ ডিসেম্বর ফরিদপুরে মোটর সাইকেল চোর চক্রের ৫ সদস্য আটক ঝিনাইদহে কৃষককে গলা কেটে হত্যা মানুষের সেবায় রক্তের প্রয়োজনে নবপুষ্প ব্লাড ফাউন্ডেশন লালমনিরহাটের দৈখাওয়ায় মিথ্যা অভিযোগ ও সংবাদ প্রকাশের প্রতিবাদে মানববন্ধন সিরাজগঞ্জে শাহজাদপুরে নব নির্বাচিত এমপি প্রফেসর মেরিনা জাহান কবিতাকে ফুলেল শুভেচছা ঠাকুরগাঁওয়ে তাড়া খেয়ে মরলো নীলগাই লক্ষ্মীপুরে স্বেচ্ছাসেবীদের ভালোবাসায় সিক্ত হারুন-নাহার দম্পত্তি ফরিদপুরে হুমায়ূন স্মরণ উৎসব ও ক্যামেরার কবি আলোকচিত্রী নাসির আলী মামুনের সম্বর্ধনা অনুষ্ঠিত
বাগেরহাটে ছাত্রী ধর্ষণ মামলায় মাদরাসা সুপারের যাবজ্জীবন কারাদন্ড

বাগেরহাটে ছাত্রী ধর্ষণ মামলায় মাদরাসা সুপারের যাবজ্জীবন কারাদন্ড

বাগেরহাট প্রতিনিধিঃ

বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলায় পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অপরাধে উত্তর খোন্তাকাটা রাশিদিয়া স্বতন্ত্র এবতেদায়ী মাদ্রাসার সুপার ইলিয়াছ হোসেন জমাদ্দার (৫৫) কে যাবজ্জীবন কারাদন্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সাথে তাকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের সশ্রম কারা কারাদন্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (০৫ নভেম্বর)দুপুরে বাগেরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক জেলা ও দায়রা জজ মো. নূরে আলম-এই দন্ডাদেশ দেন।

দন্ডাদেশ প্রাপ্ত এই মামলার একমাত্র আসামি ইলিয়াছ হোসেন জমাদ্দার (৫৫) বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার উত্তর খোন্তাকাটা রাশিদিয়া স্বতন্ত্র এবতেদায়ী মাদ্রাসার সুপার এবং একই উপজেলার পূর্ব রাজাপুর গ্রামের আব্দুল গফফার জমাদ্দারের ছেলে।মামলা সূত্রে জানা যায়,২০১৯ সালের ৮ আগস্ট পঞ্চম শ্রেণীর চার ছাত্রী মাদ্রাসা সুপারের কাছে আরবি শিক্ষা নিতে আসে। সেখানে তাড়াতাড়ি করে তিনজনকে বাড়ি পাঠিয়ে দেয় অভিযুক্ত ওই সুপার। পরে ওই শিক্ষার্থীকে মাদ্রাসার লাইব্রেরিতে নিয়ে খাটের উপর উলঙ্গ করে ধর্ষণ করেন সুপার ইলিয়াছ জমাদ্দার এবং ওই শিক্ষার্থীকে বিষয়টি মা-বাবাকে না জানানোর জন্য ভয় দেখায়। ইতোমধ্যে শিশুটির রক্তক্ষরণ শুরু হয়। বিষয়টি জানতে পেরে ওই সুপার মেয়েটির বাড়িতে গিয়ে সিঁড়ি থেকে পড়ে গিয়ে আহত হয়েছে বলে তার পিতা মাতাকে জানায়। শিক্ষার্থীকে সুস্থ্য করতে নিজেই ঝাড়ফুঁক ও পানি পড়া দেয় ওই সুপার । কিন্তু তাতে ও সুস্থ্য না হওয়ায় সুপারের পরামর্শে মোরেলগঞ্জ উপজেলার একটি ক্লিনিকে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করে শিশুটির পিতা-মাতা। সিঁড়ি থেকে পরে যাওয়া আঘাতের কারণে রক্তক্ষরণ নয়, রক্তক্ষরনের অন্য কারণ থাকতে পারে বলে চিকিৎসকরা পরিবারকে জানায়। পরে ছাত্রীর কাছ থেকে ধর্ষনের বিষয়টা শুনে ১৯ আগস্ট রাতে নির্যাতিত ছাত্রীর পিতা বাদী হয়ে ইলিয়াস হোসেন নামের ওই সুপারের বিরুদ্ধে শরণখোলা থানায় মামলা করেন। মামলার পরপরই  সুপার গা ঢাকা দেয়। থানা পুলিশ আসামীকে আটক করতে না পারায় ঐ বছরের ১৪ ই সেপ্টেম্বর পিবিআই, বাগেরহাটের কাছে মামলা হস্তান্তর করে।

একই সালের ১৮ অক্টোবর পিবিআই মাদরাসা সুপারকে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করে।১৩ নভেম্বর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন।৮জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহন ও যুক্তিতর্ক শেষে ১লা নভেম্বর এই মামলার রায় ঘোষনার দিন নির্ধারণ করেন আদালত। সেই অনুযায়ী বৃহস্পতিবার দুপুরে বাগেরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক জেলা ও দায়রা জজ মো. নূরে আলম এই রায় দেন।রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী বাগেরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিশেষ সহকারী কৌঁসুলি (এপিপি) রনজিৎ কুমার মণ্ডল জানান, পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অপরাধে উত্তর খোন্তাকাটা রাশিদিয়া স্বতন্ত্র এবতেদায়ী মাদ্রাসার সুপার ইলিয়াছ হোসেন জোমাদ্দার কে যাবজ্জীবন কারাদন্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত।আমরা আদালতের রায়ে খুশি ।

এই মামলার বাদী ছাত্রীর বাবা মোঃ রফিক হাওলাদার  রায়ের প্রতিক্রিয়ায় জানান তিনি এই রায়ে খুশি এবং সরকারের কাছে এই রায় বহাল রাখার দাবি জানান যাতে ভবিষ্যতে কোনো ধর্মীয় লেবাসধারী সহ  আর কোনো দুষ্কৃতিকারী এই ধরনের কাজ করতে সাহস না পায়।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত