জমি নিয়ে বিরোধ, সন্ত্রাসী দিয়ে পাকা স্থাপনা গুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ

জমি নিয়ে বিরোধ, সন্ত্রাসী দিয়ে পাকা স্থাপনা গুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি:

ঠাকুরগাঁওয়ে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে ফিল্মি কায়দায় সন্ত্রাসী ভাড়া করে পাকা স্থাপনা ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার হলদিবাড়ী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাবুল হোসেন ও তার ভাইদের বিরুদ্ধে।

শনিবার (৫ ডিসেম্বর) সকাল ১১টায় সাংবাদিকদের নিজ বাসভবনে ডেকে এ অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী মোঃ খলিলুর রহমান। এর আগে শুক্রবার (৪ ডিসেম্বর) সকাল ১০টায় উপজেলার ভানোর ইউনিয়নের দুর্গাপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

খলিলুর রহমান ও তার পরিবারের লোকজনের অভিযোগ, শুক্রবার (৪ ডিসেম্বর) সকাল ১০টায় বাবুল 

মাস্টার তার ভাইয়েরাসহ বালিয়াডাঙ্গী থেকে ৫০‑৬৫ জন সন্ত্রাসী ভাড়া করে তাদের এক যুগ আগে নির্মাণ করা বাথরুম, ল্যাট্টিন ও গবাদি পশুর রক্ষণাবেক্ষণের জন্য পাকা স্থাপনা ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেয়। অন্যায় ভাবে আমার পাকা স্থাপনা ভেঙ্গে নিজেদের গায়ের জোর দেখিয়েছে। স্থানীয় থানা পুলিশকে ফোন দিয়েছিলাম। তারা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আদালতের আশ্রয় নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। আমি রবিবার আদালতে মামলা করবো।

খলিলুর রহমানের পুত্র বধু জানান, আমাদের সকলকে বাড়ী থেকে বের হতে দেয়নি। আমি একবার বের হওয়ার চেষ্টা করলে আমাকে ধাওয়া করে। আমি ভয়ে ঘরের ভিতর চলে যাই। রাতের বেলা বাড়িতে হামলা করার হুমকিও দিয়ে গেছে। হলদিবাড়ী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাবুল হোসেন বলেন, চলাচলের রাস্তা দেওয়ার জন্য স্থানীয় ভাবে একাধিকবার বিষয়টি নিয়ে শালিস-বৈঠক বসার পর সিদ্ধান্ত হয় ওই বাথরুম ও ল্যাট্টিন নিজেই ভেঙ্গে ফেলবেন খলিলুর রহমান। কিন্তু সময়

 অতিবাহিত করার না ভেঙ্গে ফেলার কারণে আমরা বাধ্য হয়ে লোকজনকে নিয়ে পাকা স্থাপনা ভেঙ্গে 

দিয়েছি। তারা আদালতে গেলে আমরাও মামলা করবো।

বালিয়াডাঙ্গী থানার ওসি হাবিবুল হক প্রধান জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়েছিলো। কোন পক্ষ এখন পর্যন্ত অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ দিলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় কোন  মামলা হয়নি। তবে আদালতে মামলা করার প্রস্ততি চলছে বলে ভুক্তিভোগীর জানিয়েছে।   

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




কপিরাইট © ডেইলি আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত