শিরোনাম :
খুলনায় করোনাভাইরাসে থামছে না মৃত্যুর মিছিল, বেড়েছে শনাক্ত

খুলনায় করোনাভাইরাসে থামছে না মৃত্যুর মিছিল, বেড়েছে শনাক্ত

বি এম রাকিব হাসান, খুলনা ব্যুরোঃ

দিন-দিন দীর্ঘ হচ্ছে খুলনা বিভাগে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর মিছিল। প্রতিনিয়ত ভাঙছে রেকর্ড। একদিন পর আবারও করোনা ভাইরাসে সর্বোচ্চ মৃত্যু রেকর্ড হয়েছে। বেড়েছে শনাক্তের সংখ্যাও। হাসপাতালেও জুটছে না সবার সেবা। রোগী সামলাতে নাস্তানাবুদ চিকিৎসক ও নার্সরা। দেশে করোনাভাইরাসে মৃত্যুতে শীর্ষে রয়েছে খুলনা। ২৪ ঘণ্টায় খুলনা বিভাগে সর্বাধিক ৩২ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৭৬৩ জনের। নমুনা পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার সর্বোচ্চ ৩১ দশমিক ১০ শতাংশ। তবে শনাক্তের হারে এদিন এগিয়ে রংপুর। রংপুরে ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ৩৫ দশমিক ২০ শতাংশ।

রোববার (২০ জুন) স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো সংবাদবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, দেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৮২ জনের মৃত্যু হয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া মানুষের মধ্যে সর্বোচ্চ মৃত্যু হয়েছে খুলনা বিভাগে। এ সময়ে মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে খুলনা বিভাগে ৩২ জন, ঢাকায় ২১ জন, চট্টগ্রামে ৯ জন, রাজশাহীতে ১২ জন, সিলেটে ২ জন, রংপুরে ১ জন, বরিশালে ১ জন এবং ময়মনসিংহে ৪ জন রয়েছেন।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, ২৪ ঘণ্টায় ২২ হাজার ২৬২ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। পরীক্ষা করা হয়েছে ২২ হাজার ২৩১টি। নমুনা পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৩৮ শতাংশ। প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, দেশে করোনা শনাক্তের হারেও শীর্ষে রয়েছে রংপুর বিভাগ। এরপরই খুলনা বিভাগ।

রংপুরে নমুনা পরীক্ষার তুলনায় করোনা শনাক্তের হার ৩৫ দশমিক ২০ শতাংশ, খুলনা বিভাগে ৩১ দশমিক ১০ শতাংশ, রাজশাহী বিভাগে ২২ দশমিক ৩১ শতাংশ, সিলেট বিভাগে ১৯ দশমিক ৯৭ শতাংশ, বরিশাল বিভাগে ১৮ দশমিক ৯৬ শতাংশ, চট্টগ্রাম বিভাগে ১৫ দশমিক ৫৪ শতাংশ, ময়মনসিংহ বিভাগে ১৪ দশমিক ৬৫ শতাংশ ও ঢাকা বিভাগে ৯ দশমিক ৫৭ শতাংশ।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এ পর্যন্ত করোনায় দেশে মোট মৃত্যু হয়েছে ১৩ হাজার ৫৪৮ জনের। এ পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৬৩ লাখ ২৭ হাজার ৭৩৪টি। মোট পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৪৬ শতাংশ। ২৪ ঘণ্টায় করোনামুক্ত হয়েছেন ২ হাজার ৫০৯ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৭ লাখ ৮২ হাজার ৬৫৫ জন।

খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক রাশেদা সুলতানা বলেন, খুলনায় করোনার সংক্রমণ এবং মৃতের সংখ্যা বেড়েছে। এ জন্য মানুষকে সবার আগে বিধিনিষেধ মেনে চলতে হবে। বাড়ির বাইরে বের হলে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। অন্তত তিন ফুট দূরত্ব বজায় রেখে চলাচল করতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে করোনা সংক্রমণ কমানো সম্ভব।

এদিকে, করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়া খুলনায় মঙ্গলবার (২২ জুন) থেকে সোমবার (২৮ জুন) পর্যন্ত কঠোর লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।
খুলনা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল উদ্দিন স্বাক্ষরিত গণবিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, খুলনায় করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বৃদ্ধির কারণে ২২ জুন থেকে ২৮ জুন পর্যন্ত এক সপ্তাহের লকডাউনে খুলনা থেকে ট্রেন ও গণপরিবহন আসা-যাওয়া বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। একইসঙ্গে সব ধরনের দোকানপাট, মার্কেট, শপিংমল ও কোচিং সেন্টারসমূহ বন্ধ থাকবে।

তবে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য ও কাঁচাবাজারের দোকান সকাল সাতটা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। এ সময়ের মধ্যে হোটেল-রেস্তোরাঁগুলো পার্সেল আকারে খাবার সরবরাহ করতে পারবে। ওষুধের দোকান সার্বক্ষণিক খোলা রাখা যাবে। সব ধরনের পর্যটনকেন্দ্র, রিসোর্ট, কমিউনিটি সেন্টার ও বিনোদনকেন্দ্র বন্ধ থাকবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত