ঠাকুরগাঁওয়ের আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর দেওয়ার নামে টাকা আত্মসাৎ ও হুমকির প্রতিবাদে ইউএনও’র বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

ঠাকুরগাঁওয়ের আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর দেওয়ার নামে টাকা আত্মসাৎ ও হুমকির প্রতিবাদে ইউএনও’র বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

মাহামুদ আহসান হাবিব, ঠাকুরগাঁও :

ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুরে আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর দেওয়ার নামে টাকা আত্মসাৎ ও হুমকির প্রতিবাদে ইউএনও’র বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ভুক্তভোগী আলিয়ারা খাতুন(২৫) গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের আনিছুল হক মিলনায়তনে এ সংবাদ সম্মেলনটি করেছেন

এ সময় আলিয়ারা খাতুন সাংবাদিকদের জানান, হরিপুরের জীবনপুর কুশলগাঁও এলাকার ইয়াসিন আলীর মেয়ে আলিয়ারা খাতুন প্রায় ২ বছর পূর্বে ১ সন্তান নিয়ে স্বামী পরিত্যক্ত হয়ে ভূমিহীন পিতার বাড়িতে বসবাস করা শুরু করে। পিতার নিজস্ব বসবাসের জমি না থাকায় প্রতিবন্ধী দুলাভাই নঈমউদ্দীনের ভোগ দখলে থাকা সরকারি খাস জমিতে নির্মিত বসতবাড়ির আশ্রয় গ্রহণ কওে সে।

খাস জমিতে সরকারি ভাবে সকল দু:স্থ ও ভূমিহীনদের জন্য আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর দেওয়া হবে বলে হরিপুর উপজেলার নির্বাহী অফিসার(ইউএনও) আশ^াস প্রদান করলে আলিয়ারা তদবির শুরু করেন। আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর নির্মাণের তদারককারী তরিকুল ও উপজেলা ভূমি অফিসের কর্মচারী মানিক এর কথামত সে একটি গাভী বিক্রি করে ইউএনওর শ্যালক তানভীন হাসানকে সরাসরি ৬০(ষাট) হাজার টাকা প্রদান করে। তারা আলিয়ারাকে তারবাগান এলাকায় অবস্থিত আশ্রয়ন প্রকল্পের ২ নং ঘরটির দখল বুঝিয়ে দেয়। উক্ত ঘরে তিনি প্রায় চার মাস যাবৎ সন্তান সহ বসবাস করতে থাকে। পরবর্তীতে তরিকুল ও মানিক আলিয়ারার কাছে পুনরায় ২০(বিশ) হাজার টাকা দাবি করে এবং টাকা না দিলে ঘর থেকে বের করে দিবে বলে হুমকি দেয়। টাকা দিতে না পারায় তারা আলিয়ারাকে গত ০১/০৯/২০২১ খ্রি: তারিখে ঘর থেকে বের করে দেয়।

এসব বিষয়ে আলিয়ারা ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক বরাবরে গত ৫ তারিখে একটি লিখিত অভিযোগ করলে ১৩ তারিখ দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে হরিপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল করিম তাকে কৌশলে ইউএনওর কার্যালয়ে ডাকে। সেখানে ইউএনও আলিয়ারাকে পুলিশ ও তার কার্যালয়ের কর্মচারী দ্বারা মানসিক ভাবে নির্যাতন করে এবং হুমিকি দেয় যে, তাদের মত করে জবানবন্দি না দিলে বড় ধরনের ক্ষতি করবে। সে সময় জোরপূর্বক আলিয়ারার কাছে তাদের মতো করে স্বীকারোক্তিমূলক ভিডিও ধারণ করে এবং সাদা কাগজে স্বাক্ষর করিয়ে নেয়। তাই নিরাপত্তাহীনতার কারনে সামাজিক ও রাষ্ট্রীয়ভাবে নিরাপত্তার জন্য সাংবাদিকদের কাছে অনুরোধ করেন আলিয়ারা।

হরিপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) আব্দুল করিম এসব অভিযোগ অস্বিকার করে বলেন, এ ধরনের কোন ঘটনাই ঘটেনি। লিখিত অভিযোগ পেলে আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখবো।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত