শিরোনাম :
গাজীপুরে শিক্ষক পরিবারের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানীর অভিযোগ গাজীপুরে সরকারি হাসপাতালে পুলিশসহ ২জনকে কামড়ে দিলো রিক্সা চালক নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলা জামনগর ডিগ্রি কলেজের নতুন ভবনের উদ্বোধন ভূমিসেবায় এখন কোন হয়রানি নাই, কেউ দালালের কাছে যাবেন না:নরসিংদীর জেলা প্রশাসক গাজীপুরে সুদের টাকা পরিশোধ করেও হয়রানির শিকার রাজবাড়ীতে ট্রেনে কাটা পড়ে মৎসজীবী নিহত মধুপুরে ভূমি সেবা সপ্তাহ  উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‍্যালি অনুষ্ঠিত ভূমি অধিগ্রহণ সম্পন্ন না হওয়ায় পিরোপুরি বন্ধ হয়ে গেছে ভৈরব সেতুর নির্মাণ কাজ ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন পাচারকারীর হাত থেকে পালিয়ে দেশে ফিরলো এক যুবতী, ঘটনার সাথে জড়িত গ্রেফতার  ৩ 
অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণ করবেন বীর মুক্তিযোদ্ধা ইউপি চেয়ারম্যান

অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণ করবেন বীর মুক্তিযোদ্ধা ইউপি চেয়ারম্যান

রাজিবুল করিম, ভাংগুড়া প্রতিনিধি: ভাঙ্গুড়া উপজেলার খানমরিচ ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আসাদুর রহমানের(বি,এ) বিরুদ্ধে দুর্নীতির মাধ্যমে কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগকে ষড়যন্ত্র বলছেন তিনি।  গত ২৭/০২/২০২০ ইং,বৃহস্পতিবার তিন পৃষ্ঠা সংবলিত দুর্নীতির অভিযোগ ৮ ইউপি সদস্য জমা দিয়েছেন পাবনা দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সমন্নিত কার্যালয়ের উপপরিচালক ও পাবনা জেলা প্রশাসকের কাছে। অভিযোগপত্রে চেয়ারম্যান সাহেব আসাদুর রহমানের নানা অনিয়মের তদন্তর দাবি করেছেন ইউপি সদস্যরা। তবে সব অভিযোগ অস্বীকার করে শনিবার সন্ধ্যায় উনার চন্ডিপুর বাজার কার্যলয়ে ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আছাদুর রহমান বিভিন্ন পত্রিকার সাংবাদিকদের জানান, তার বিরোধী আওয়ামী লীগের একটি গ্রুপ ষড়যন্ত্র করে ইউপি সদস্যদের দিয়ে এই অভিযোগ দায়ের করিয়েছেন। তারা আমাদের উন্নয়নের বিঘ্ন ঘটাতে নানা মিথ্যা অপপ্রচার করছে৷ তবে তিনি তদন্তে সঠিক তথ্য-প্রমাণাদি তুলে ধরে এসব অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণ করবেন বলে জানান।তিনি আরো বলেন একজন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক চাকরি ছেড়ে আগামী ইউপি নির্বাচনে অংশ গ্রহণ চায় বিধায় তিনি এই ষড়যন্ত্র করাচ্ছেন। তবে সব অভিযোগ তিনি প্রমাণ সাপেক্ষে মিথ্যা বলে প্রমাণিত করবেন জানান। এই বিষয়ে পাবনা জেলা প্রশাসক কবির মাহমুদ বলেছিলেন, ‘ভাঙ্গুড়া উপজেলার একজন ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। পরবর্তী সময়ে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এদিকে খানমরিচ ইউনিয়নবাসীর বক্তব্য হলো, একজন ব্যক্তির নামে অভিযোগ আসতেই পারে,কিন্তু অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়া পর্যন্ত এই বিষয়ে আমাদের কোন মমন্তব্য করা উচিৎ নয়। তবে ইউনিয়নবাসীর প্রত্যাশা, বীর মুক্তিযোদ্ধা আছাদুর রহমান এসব অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণিত করে আবার খানমরিচ ইউনিয়ন বাসীর উন্নয়নে কাজ করবেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত