শিরোনাম :
দিঘলিয়া উপজেলা শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনে ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী  নওগাঁয় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর এর অভিযানে ৬কেজি গাঁজাসহ আটক-১ নাহিদুজ্জামান বাবুর স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি  সিরাজগঞ্জে গরু চুরিতে বাধা দেওয়ায় পিকআপের চাপায় গৃহবধু হত্যা,ডাকাত দলের ৪ পলাতক আসামী গ্রেফতার বড়াইগ্রামে পাটোয়ারী কোয়ালিটি এডুকেয়ার ইনস্টিটিউটে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতা অনুষ্টিত পূর্বধলায় সরকারী চাকুরীজীবী হওয়া সত্বেও করেন সাংবাদিকতা খুলনায় মাসব্যাপী একুশে বইমেলা শুরু ,বই ছাড়া জ্ঞান অর্জন করা যায় না -সিটি মেয়র বিভাগীয় সমাবেশ উপলক্ষে ঠাকুরগাঁওয়ে বিএনপির বর্ধিত সভা পাতাল রেল নির্মাণ কাজের উদ্বোধন রোহিঙ্গা প্রসঙ্গে ‘বিশ্ব হাত গুটিয়ে বসে থাকলে আবারো ২০১৭ সালের পুনরাবৃত্তি হবে :জাতিসংঘ
ডোমারে সরিষার হলুদ ফুলে ভরে গেছে মাঠ, আবাদ বেড়েছে দেড়গুণ

ডোমারে সরিষার হলুদ ফুলে ভরে গেছে মাঠ, আবাদ বেড়েছে দেড়গুণ

নীলফামারী প্রতিনিধিঃ নীলফামারীর ডোমার উপজেলায় সরিষার হলুদ ফুলে ভরে গেছে বিস্তীর্ণ মাঠ। আবাদ বেড়েছে দেড়গুণ। সরিষা চাষে দিন দিন আগ্রহ বাড়ছে কৃষকের। সরিষা ফুলে প্রকৃতির অপরূপ সাজে সেজেছে গ্রামীণ জনপদের বিস্তীর্ণ মাঠ। হলুদ সর্ষেক্ষেত হাতছানি দিয়ে ডাকছে সৌন্দর্য পিপাসুদের। সকালের মিষ্টিসোনা রোদে আরো চকচক করছে হলুদের বিস্তীর্ণ ক্ষেত। সরিষা ক্ষেতের সৌন্দর্য উপভোগ করতে সৌন্দর্য পিপাসুরা অনেকে আসছেন সরিষা ক্ষেত দেখতে আবার ছবি ও সেলফি তুলছেন অনেকে।
এবারে ডোমার উপজেলায় সরিষা আবাদের লক্ষমাত্রা ছাড়িয়ে গেছে। আবাদ বেড়েছে দেড়গুণ। দু ফসলি জমিতে তিন ফসলি আবাদ বাড়াতে প্রণোদনাসহ বিভিন্ন সহায়তা ও পরামর্শ দিয়ে আসছেন কৃষি বিভাগ। কম পরিশ্রমে বেশি দাম পাওয়ায় সরিষা চাষে দিন দিন আগ্রহ বাড়ছে কৃষকের।ডোমার উপজেলার ১০ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় এবারে সরিষা চাষের লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৭০০ হেক্টর জমিতে। লক্ষমাত্রা ছাড়িয়ে সরিষা আবাদ হয়েছে ৭৬০ হেক্টর জমিতে। গত বছরে সরিষা আবাদ হয়েছিল ৪৯৫ হেক্টর জমিতে। গতবারের তুলনায় এবার চাষাবাদ বেড়েছে দেড়গুণ। চাষাবাদ করা সরিষার মধ্যে রয়েছে বারী-৯, বারী-১৪, বারী-১৫, বারী-১৭ ও বীনা- ৯ জাতের সরিষা।
কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, সরিষার আবাদ বাড়াতে এবারে সরিষা চাষের জন্য ১হাজার ৪৫০জন চাষির মাঝে বীজ ও সার প্রণোদনা হিসেবে দেয়া হয়েছে। এছাড়াও তেল জাতীয় ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্পের আওতায় ৩৫জন চাষিকে বীজ, সার, সাইনবোর্ড ও আন্তঃ পরিচর্যা সহায়তার অর্থ দেয়া হয়েছে। এরমধ্যে সূর্যমুখীর দুটি প্রদর্শনী প্লট, ভূট্টার ৩টি বাকীগুলো সরিষার। এ বছর তেমন প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও রোগবালাইয়ের আক্রমণ না থাকায় সরিষার ভালো ফলনের পাশাপাশি ভালো দাম পাওয়ার আশা করছেন চাষি।
বামুনিয়া ইউনিয়নের খামার বামুনিয়া গ্রামের চাষি জুয়েল ইসলাম জানান, নিজ উদ্যোগে এবার আমি ৯ বিঘা জমিতে সরিষার আবাদ করেছি। গত বছরও ৮বিঘা জমিতে সরিষা আবাদ করেছি। কৃষি বিভাগ থেকে এক বিঘা জমির জন্য প্রণোদনার আওতায় বীজ ও সার দেয়া হয়েছে। তিনি আরো জানান, এখনো সরিষা ধরেনি কেবল ফুল ফুটেছে। তাতেই অনেকে সরিষা কিনতে আগ্রহ দেখিয়েছেন। আশা করছি ভালো দাম পাওয়া যাবে। ওই ইউনিয়নের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা হিরম্ব কুমার রায় জানান, আমন ধান ওঠার পর জমিগুলো পতিত রেখে বোরোধান লাগানোর অপেক্ষায় থাকে চাষিরা। বছরের এই সময়টাতে কৃষকদের মাঝে সরিষা আবাদে আগ্রহ সৃষ্টি করতে এবং দু ফসলি জমিতে তিন ফসলি আবাদ বাড়াতে আমরা প্রণোদনাসহ বিভিন্ন পরামর্শ ও তেল জাতীয় ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্পের আওতায় সহায়তা প্রদান করছি।উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবীদ আনিসুজ্জামান জানান, তেলের দাম বেড়ে যাওয়ায় সরিষা চাষে আগ্রহী হচ্ছেন চাষি। সরিষার দাম বেশি থাকায় এবারে লাভবান হবেন কৃষক।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত