শিরোনাম :
কিশোর গ্যাং মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রী বিশেষ নির্দেশনা দিঘলিয়ার গাজীরহাট থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার  নওগাঁ জেলা সাংবাদিক বন্ধু ফোরামের উদ্যোগে ইফতারী বিতরণ পূর্বাচল মানব কল্যাণ সংস্থা,র উদ্যোগে ৫ শতাধিক দুস্থদের মাঝে ঈদ উপহার  ভিসানীতি কঠোর করছে নিউজিল্যান্ড দিঘলিয়ায় বোরো ধানের বাম্পার ফলনের আশা কৃষকের আশুলিয়ায় ট্যুরিস্ট পুলিশের অফিস উদ্বোধন ও মতবিনিময় সভা নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করলে প্র্রয়োজনে প্রার্থিতা বাতিল:ইসি আহসান হাবিব আশুলিয়ায় ট্যুরিস্ট পুলিশের অফিস উদ্বোধন ও মতবিনিময় সভা খুলনা মহানগরীর তেলিগাতীতে গ্রীলের তালা ভেঙ্গে দিনে-দুপুরে চুরি 
নেত্রকোণায় সাব রেজিষ্ট্রি অফিসে চলছে জাল দলিলের মহৎসব ; চলছে তদন্ত

নেত্রকোণায় সাব রেজিষ্ট্রি অফিসে চলছে জাল দলিলের মহৎসব ; চলছে তদন্ত

গজনবী বিপ্লব, নেত্রকোণা প্রতিনিধি:

গত ৩১ঁজানুয়ারী নেত্রকোণায় সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসে অবাদে জাল দলিল তৈলী করছে ধলিল লেখকরা শিরোনামে আজকের আলোকি সকাল পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর নেত্রকোনার মদনে জাল দলিল লেখকদের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু হয়েছে।আজ সকালে জেলার বারহাট্টার সাব-রেজিষ্টার শেখ আব্দুস সালাম আজাদ এই তদন্ত শুরু করেন।

এ সময় তিনি বলেন, মদন উপজেলা সাব-রেজিষ্টার অফিসে জাল দলিল তৈরী করায় তিন দলিল লেখকের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করা হয়। এরই প্রেক্ষিতে উপরের নির্দেশে তদন্ত শুরু হয়েছে। তদন্ত শেষে আসল ঘটনা বলা যাবে।

এসময় মদন সাব-রেজিষ্টার, তদন্তকারী কর্মকর্তা, অভিযোগকারী পক্ষে ১৩ জন ও ৩ অভিযুক্ত উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে কয়েকজন দলিল লেখক নেত্রকোণা মদন পৌর এলাকার জাহাঙ্গীরপুর গ্রামের মৃত নন্দলাল বৈশ্যের নিরুদ্দেশ ছেলে দেবাশীষ বৈশ্যের জাহাঙ্গীরপুর মৌজায় ৪.৩০ শতাংশ জমি অন্য এক ব্যক্তিকে দেবাশীষ বৈশ্যে বানিয়ে দলিল লেখকের একটি চক্র জাল-জালিয়াতির মাধ্যমে হাতিয়ে নিয়েছিল ।

জালিয়াতির বিষয়টি প্রকাশ পাওয়ার পর জালিয়াত চক্রটি উক্ত জমিটি গত ৯ জানুয়ারী গ্রহীতা মোঃ জাহাঙ্গীর মিয়া নিকট হতে দেবাশীষ বৈশ্যের নামে না দিয়ে, প্রবীর বৈশ্যের নামে রেজিস্ট্রি করে দেয়। অথচ জমির প্রকৃত মালিক দেবাশীষ বৈশ্য। এ সব অপর্কমের বিরুদ্ধে গত ২২ জানুয়ারী উপজেলা দলিল লেখক সমিতির সভাপতি ও সদস্যরা একটি লিখিত অভিযোগ বিভিন্ন দপ্তরে ।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ২০২২ সালের ২৬ ডিসেম্বর জাহাঙ্গীরপুর মৌজায় নিরুদ্দেশ এর বড় ভাই প্রবীর বৈশ্য এই জমিটি ভোগ করার জন্য দলিল লেখকদের যোগসাজশে অন্যজনকে নিজেই ভূঁয়া দাতা বানিয়ে উপজেলা নায়েকপুর ইউনিয়নের চন্দ্রতলা গ্রামের মৃত আবু সাদেকের ছেলে মোঃ জাহাঙ্গীর মিয়াকে দলিলের গ্রহীতা সাজিয়ে জালিয়াতি করে মদন সার রেজিষ্ট্রি অফিস থেকে জমি নিবন্ধন করে নেয়। জমির বর্তমান বাজার মূল্য প্রায় অর্ধ কোটি টাকা।

মদন সাব-রেজিস্ট্রার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, জাহাঙ্গীরপুর বৈশ্য পাড়ার মৃত দিপক দত্তের ছেলে দুলাল দত্তকে দেবাশীষ বৈশ্য সাজিয়ে জমি রেজিস্ট্রি করেন নেন। এই দলিলে দেবাশীষ বৈশ্যের জাতীয় পরিচয় পত্রে দুলালের ছবি ব্যবহার করা হয়। দলিল লেখক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল গণি, দুলাল দত্তকে দেবাশীষ বৈশ্য বলে সনাক্ত করে জাল দলিল রেজিস্ট্রি করেন।

ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে ২২ জানুয়ারী প্রবীর বৈশ্য জমিটি তার ভাই দেবাশীষ বৈশ্যের নামে তৃতীয় দফায় রেজিস্ট্রি করে দেয়। অথচ দেবাশীষ বৈশ্য দীর্ঘ দিন যাবৎ নিরুদ্দেশ। এরই জের ধরে দলিল লেখক আব্দুল গণিকে সাময়িক বহিষ্কার করেই দায় সারলেন সাব-রেজিস্টার।

জাল দলিল রেজিস্ট্রি করতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখেন, দলিল লেখক মাসুম ইয়ার খান ও দলিল লেখক মোঃ হাফিজুর রহমান। উপজেলা দলিল লেখক সমিতি অভিযোক্ত ৩ জনকেই সমিতি হতে বহিষ্কার করেছে।

মদন দলিল লেখক সমিতির সভাপতি আল মামুন আকন্দ রিপন জানান, সাধারন জনগন যেনো রেজিস্ট্রি অফিস ও দলিল লেখকদের প্রতি বিশ্বাস এবং আস্থা না হারায়, সেই দৃষ্টিকোণেই অভিযোক্ত ৩ দলিল লেখকে জঘন্য অপরাধের সাথে জড়িত থাকার কারনে সমিতি হতে বহিষ্কার করা হয়েছে। তাদেরকে আইনের আওতায় এনে বিচার করার জন্য দাবি করছি। তাদের বিচার দেখে অন্যেরাও যেন শিক্ষা পায়।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত