শিরোনাম :
বড়াইগ্রামে সাতটি বাড়িতে আগুন, চৌদ্দ লক্ষ টাকার ক্ষতি

বড়াইগ্রামে সাতটি বাড়িতে আগুন, চৌদ্দ লক্ষ টাকার ক্ষতি

 নাটোর প্রতিনিধি:
নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলায় সোমবার আনুমানিক দুই ঘন্টার ব্যবধানে পৃথক স্থানে সাতটি বাড়িতে অগ্নিকান্ড ঘটে। তারমধ্যে দ্বারীখৈর গ্রামের আলহাজ ছাবেদ আলী, জমসেদ আলী ও আনোয়ার হোসেনের প্রত্যেকের টিনসেড গোয়ালঘর ও ভুষির ঘর পুড়ে আনুমানিক ছয় লক্ষ টাকার ক্ষতিসাধন হয়েছে। স্থানীয়রা জানান, চার বছর বয়সী তিন শিশু বাড়ির পাশের দোকান থেকে একটি দিয়েশলাইয়ের বাক্স ক্রয় করে। তারপর তারা আনোয়ার হোসেনের গোয়াল ঘরের পিছনে সংরক্ষণে রাখা পাটসোলার স্তুপের কাছে গিয়ে দিয়েশলাইয়ের কাঠিতে আগুন জ¦ালায় এক শিশু। শিশুটির হাতে তাপ লাগলে জলন্ত দিয়েশলাইয়ের কাঠি পাটসোলার স্তুপে ছুড়ে ফেলে দেয়। সেখান থেকে আগুন পাশের তিনটি গোয়াল ঘর ও তিনটি ঘুষির ঘরে ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনাটি ঘটে সোমবার সকাল নয়টার দিকে।
এ ঘটনার আগে সোমবার সকাল সাতটার দিকে উপজেলার রামাগাড়ী গ্রামের মনোয়ারা বেওয়া, খৈইমন বেওয়া, স্বামী পরিত্যাক্তা রুমেলা খাতুন ও রুমা বেগম নামের চার ভিখারিনীর টিনসেডের শয়ন কক্ষ ও রান্না ঘর পুড়ে ছাই হয়েছে। নিঃস্ব হয়েছে দরিদ্র চার ভিখারিনী। ঘরে থাকা আসবাবপত্র, কাপড় কিছুই বের করতে পারেনি তারা।
স্থানীয়রা জানান, মনোয়ারা বেওয়ার রান্নাঘর থেকে আগুনের সুত্রপাত হয়। তা দ্রুত পাশের বাড়িতে ছড়িয়ে পড়ে। এ অগ্নিকান্ডে আনুমানিক আট লক্ষাধিক টাকার ক্ষতিসাধন হয়েছে তাদের।
 দ্বারীখৈর গ্রামের মতালেব হোসেন ও রামাগাড়ী গ্রামের মাসুদ রানা জানান,বনপাড়া ফায়ার স্টেশনের দমকল বাহিনী ঘটনাস্থলে আসাতে উপকার হয়েছে। তারা এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। অন্যথায় আগুন পাশের বাড়িতে আরও ছড়িয়ে পড়তো।
  বনপাড়া ফায়ার স্টেশন অফিসার আকরামুল হাসান তুষার জানান, রামাগাড়ী গ্রামের আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে না আনতেই খবর পেয়ে দ্বারীখৈর গ্রামে ছুটে যাই এবং আগুন নিয়ন্ত্রণে আনি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত