শিরোনাম :
নরেন্দ্র মোদি পূণরায় ক্ষমতায় এলে ৬ মাসের মধ্যে কাশ্মিরকে ভারতের অংশ করা হবে সিরাজগঞ্জে চলতি বছরই সেতু দিয়ে চলবে ট্রেন ইরানের প্রেসিডেন্ট হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় নিহত দিঘলিয়ায় মহি মল্লিকের নির্বাচনী নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে পুলিশী হয়রানীর অভিযোগ  নওগাঁয় গ্রামীন ব্যাংকের মত বিনিময় সভা-অনুষ্ঠিত  আশুলিয়ার শিমুলিয়ায় ভূমিদস্যুদের দখলে অসহায় মাসুদের জমি  আপনি বাংলাদেশ ব্যাংকে ঢুকবেন কেন সাংবাদিকেদের প্রশ্ন ওবায়দুল কাদেরের ইসরাইল হেরে যাচ্ছে: সাবেক গোয়েন্দা উপ-প্রধান শ্রীবরদীতে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার আশুলিয়ায় চায়না আদিবাসী নারী পাচার চক্রের বিরুদ্ধে মানববন্ধন
শরীফপুর আয়েশা হালিম এতিমখানা ব্যপক সুনাম অর্জন করেছে

শরীফপুর আয়েশা হালিম এতিমখানা ব্যপক সুনাম অর্জন করেছে

আলমগির হোসেন বাদশা।

মানব সেবা একটি মহৎ কাজ, দুনিয়া ও আখেরাতের কল্যানের কথা চিন্তা করে এলাকার দুস্থ অসহায় এতিম শিশুদের প্রতিপালন, চিকিৎসা এবং শিক্ষা প্রদানের মাধ্যমে মানবসম্পদে পরিনত করার লক্ষে কুমিল্লা জেলাস্থ মনোহরগঞ্জ উপজেলার  চিতোষী শরীফপুর এলাকায় ” শরীফপুর পীর শাহ্ শরীফ হাফিজিয়া মাদরাসা ও আয়েশা হালিম এতিমখানা  ” নামে ১৯৯১ সালে জনাব কর্ণেল (অবঃ) আলহাজ্ব এম. আনোয়ার-উল-আজিম পি এস সি এবং এ.বি.এম ফজলুল করীম বাহার এর যৌথ উদ্যোগে একটি মাদ্রাসা ও এতিমখানা  প্রতিষ্ঠা করেন। যাহার রেজিনং- কুমি ১৪২৮।এখানে নূরানী ও হেবজ এবং প্রাথমিক শিক্ষা প্রদান করা হয়। বর্তমানে এখানে প্রায় ১০০ জন শিক্ষার্থী আছে, ৮০ জন অাবাশিক ছাত্র। এর মধ্যে প্রায় ৫০ জন ছাত্র রয়েছে অত্যন্ত গরীব, অসহায় ও এতিম।

খুজ নিয়ে জানা যায় ওই মাদ্রাসার সভাপতি জনাব কর্ণেল (অবঃ) আলহাজ্ব এম. আনোয়ার-উল-আজিম পি এস সি এর সু-দক্ষ নেতৃত্বে উক্ত এতিমখানা ও মাদ্রাসাটি প্রতিষ্ঠার পর থেকে অদ্য পর্যন্ত সার্বিক বিবেচনায় প্রতিষ্ঠানটি এলাকায় ব্যপক সুনাম অর্জন করেছে। এই প্রতিষ্ঠান হতে শত শত অসহায় এতিম শিশু সু-শিক্ষা অর্জন করেছে। আরও জানা যায় মাওলানা মুহাম্মদ শামছুদ্দোহা ২০০৪ সাল থেকে অদ্য পর্যন্ত পরিচালনায় নিয়োজিত থেকে এই প্রতিষ্ঠানটির কল্যানে নিঃস্বার্থভাবে দিন রাত শ্রম দিয়ে যাচ্ছেন। তিনি দ্বায়িত্বভার গ্রহনের পরে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের সমন্ময়ে অক্লান্ত শ্রমের বিনিময়ে এবং বিভিন্ন আর্থিক সহায়তার মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানটি আজ  ভবনে রুপান্তর হয়েছে।

ক্রাইম পেট্রোল বিডির বিশেষ প্রতিনিধি সরজমিনে পরিদর্শন করলে দেখা যায় এখানে সমাজসেবা অধিদফতর হতে সরকারী ক্যাপিটেশন গ্রান্ট সহায়তা পায় মাত্র ১৩ জন, কিন্তু অসহায় গরীব ছাত্র রয়েছে প্রায় ৫০ জন। যার ভরন পোষন সহ সকল প্রকার দ্বায়িত্ব বহন করছে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ। এই সল্প টাকায় অসহায় এতিম ছাত্রদের খরচ চালাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে বলে জানিয়েছেন এতিমখানা কর্তৃপক্ষ। তারা ক্যাপিটেশন গ্রান্ট সহায়তা প্রদান বৃদ্ধির জন্য সমাজসেবা অধিদফতর এর সু-দৃষ্টি কামনা করেছেন ।

উক্ত এতিমখানার পরিচালক মাওলানা মুহাম্মদ শামছুদ্দোহা  ক্রাইম পেট্রোল বিডিকে বলেন, এখানে দুনিয়ার শান্তি এবং আখেরাতের মুক্তির জন্য পবিত্র কোরআন হেফজ ও পবিত্র কোরআন-হাদিসের সঠিক শিক্ষা প্রদান করা হয়।  আমাদের এই প্রতিষ্ঠান এলাকার দুস্থ অসহায় এতিম শিশুদের প্রতিপালন এবং পবিত্র কোরআন ও হাদীস শিক্ষা প্রদানের মাধ্যমে মানবসম্পদে পরিনত করে এলাকায় ইতিমধ্যে ব্যপক সুনাম অর্জন করেছে। আর্থিক সমস্যার কারনে আমরা প্রতিষ্ঠানটি সঠিক ভাবে পরিচালনা করতে পারছিনা। এতিমখানাটি সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য দেশের বিত্তবান ও সরকারী উর্ধতন মহলের সু-দৃষ্টি এবং সার্বিক  সহযোগিতা কামনা করছি। সহায়তা প্রদানের ব্যাংক একাউন্ট নাং- ৯৪১৩,  রুপালী ব্যাংক চিতোষী বাজার শাখা, মনোহরগঞ্জ, কুমিল্লা।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




কপিরাইট © ২০২১ || দি ডেইলি আজকের আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত